• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২২শে সফর, ১৪৪১ হিজরী

রাত ৯:৫৯

২৪ ঘণ্টার বদলে তিনদিন পার হলেও কোনো বাজারেই কমেনি পেঁয়াজের দাম


নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকার পেঁয়াজের দাম কমার আশ্বাস দিলেও বাজারে তার প্রভাব পড়েনি। ২৪ ঘণ্টার বদলে তিনদিন পার হলেও কোনো বাজারেই পেঁয়াজের দাম কমেনি। এছাড়া চড়া দামের কারণে সবজির বাজারে হিমশিম খাচ্ছেন ক্রেতারা। সরবরাহ বাড়লেও রাজধানীর বাজারে অধিক মুনাফায়, চড়া দামেই সবজি বিক্রি করছেন বিক্রেতারা।

আজ শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর কারওয়ান বাজার, হাতিরপুল, শান্তিনগর, সেগুনবাগিচার বিভিন্ন বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শীতের আগাম সবজি শিমের কেজি গত সপ্তাহের মতো বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা। ছোট আকারের প্রতি পিস ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা। একই দামে বিক্রি হচ্ছে বাঁধাকপি। মুলা বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা কেজি। সপ্তাহের ব্যবধানে এ সবজিগুলোর দামও অপরিবর্তিত রয়েছে।

শীতের আগাম সবজির সঙ্গে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে লাউ, টমেটো, করলা, গাজর, ঝিঙে, বরবটি, বেগুন, পটল, ঢেঁড়স, উসি, ধুন্দুলসহ সব ধরনের সবজি। ছোট আকারের লাউ আগের সপ্তাহের মতো বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকা পিস।

পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি। গাজর বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকা কেজি। করলা ৬০-৭০ টাকা, বরবটি ৭০-৮০ টাকা, বেগুন ৫০-৬০ টাকা, চিচিংগা, ঝিঙা, ধুনদল ৫০-৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

তবে কিছুটা কমেছে কাঁকরোলের দাম। বাজার ভেদে কাঁকরোলের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫০-৬০ টাকা কেজি।

তবে কিছুটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁপে ও মিষ্টি কুমড়া। পেঁপে আগের সপ্তাহের মতো বিক্রি হচ্ছে ১৫-২০ টাকা কেজি। আর মিষ্টি কুমড়ার ফালি পাওয়া যাচ্ছে ১৫-২০ টাকার মধ্যে।

হাতিরপুল বাজারের সবজি বিক্রেতা রহিম মিয়া বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে গত কয়েকদিন বৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে সবজির সরবরাহ কম ছিলো। তাই রাজধানীর বাজারে প্রভাব পড়েছে।