• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৫:৫০

১৫ হাজার কোটি টাকা হারিয়েছে জিপি শেয়ারহোল্ডাররা


অনলাইন ডেস্ক : পাওনা টাকা আদায়ে সরকারের সাথে টানাপোড়েনের কারণে গ্রামীণফোনের শেয়ারের দর পড়ে গেছে। পাঁচ মাসের মধ্যে তাদের প্রতিটি শেয়ারের দাম কমেছে ১শ’ ১৪ টাকা। এতে গ্রামীণফোনের শেয়ারহোল্ডাররা হারিয়েছেন সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকা। অবিলম্বে এ অবস্থার পরিবর্তন চান বিনিয়োগকারীরা।

পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত টেলিযোগাযোগ কোম্পানিগুলোর মধ্যে সর্ব বৃহৎ গ্রামীণফোন। দু’দফা অডিটের মাধ্যমে বেরিয়ে আসে কোম্পানিটি ২০ বছরে রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা। এই অর্থ আদায়ে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র দীর্ঘদিন ধরে চলছে টানাপোড়েন। আর এর জেরে পুঁজিবাজারে গ্রামীণফোনের শেয়ারের দর কমতে থাকে।

দুই এপ্রিল বিটিআরসি চিঠি দেয়ার আগের দিন গ্রামীণফোনের প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ছিল ৪শ’ ১৭ টাকা, যা কমতে কমতে বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ৩শ’ ৩ টাকায়। এর ফলে গত পাঁচ মাসে গ্রামীণফোনের শেয়ারহোল্ডাররা হারিয়েছেন প্রায় সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকা। যা বিনিয়োগকারীদের মধ্যে এক ধরণের আতঙ্ক তৈরি করেছে।

গ্রামীণফোনের শেয়ারের এমন করুণ দশার কারণে সার্বিক বাজারেও নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। কয়েক মাস ধরে অব্যাহত পতনের মধ্যে রয়েছে শেয়ারবাজার।

গ্রামীণফোনের ৫৫ দশমিক ৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে নরওয়ের প্রতিষ্ঠান টেলিনরের। গ্রামীণ টেলিকম করপোরেশনের রয়েছে ৩৪ দশমিক ২ শতাংশ আর বাকি ১০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে বিভিন্ন বিনিয়োগকারীর হাতে।