• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৪:১২

সমঝোতায় বসছেন না ক্রিকেটাররা


স্পোর্টস ডেস্ক: বিসিবি এবং ক্রিকেটারদের মধ্যে সমঝোতার গুঞ্জন। প্রধানমন্ত্রী তার দফতরে ডেকে নিয়েছেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাকে। দায়িত্ব দিয়েছেন সমাঝোতার।
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এবং বোর্ড পরিচালক নাঈমুর রহমান দুর্জয়। যে কারণে সন্ধ্যা নাগাদ বোর্ড এবং ক্রিকেটাররা বসে একটা সমঝোতা অনুষ্ঠিত হতে পারে- এমন একটা আভাস ছড়িয়ে পড়েছিল।
সন্ধ্যা ৬টায় নিজেদের মধ্যে বৈঠক শেষে গুলশানের সিক্স সিজন হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনের ডাক দিয়েছেন ক্রিকেটাররা। ধারণা করা হচ্ছিল, ওই সংবাদ সম্মেলনের পরই হয়তো বিসিবিতে অপেক্ষমাণ বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে যাবেন ক্রিকেটাররা।
কিন্তু এরই মধ্যে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে, বোর্ডের সঙ্গে আজও আলোচনায় বসবেন না হয়তো। খুব সম্ভবত, সংবাদ সম্মেলনে আগের ১১ দফা দাবির সঙ্গে নতুন কোনো শর্ত জুড়ে দিতে পারেন আজ তারা।
এর একটাই কারণ, মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন যে সুরে কথা বলেছেন, সেটা মোটেও পছন্দ হয়নি আন্দোলনরত ক্রিকেটারদের। কারণ, বিসিবি সভাপতি সেখানে জানিয়েছেন, এই আন্দোলনে ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন তিনি। ষড়যন্ত্র করে ক্রিকেটাররা বাংলাদেশের ক্রিকেটের এবং দেশের ক্রিকেটের ইমেজ নষ্ট করে দিয়েছে।
বিসিবি সভাপতি হুমকিও দিয়েছেন, ষড়যন্ত্র সবাই করছে না। দু’একজন করছে। তাদের খুঁজে বের করা হবে। শুধু তাই নয়, সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি ক্রিকেটারদের অনেকের ব্যক্তিগত নানা বিষয়ও তুলে নিয়ে আসেন। ক্রিকেটাররা মনে করছেন, এগুলো তাদের জন্য সম্মানহানির।
বিভিন্ন সূত্রে ক্রিকেটারদের ভাষ্য জানা গেছে। তাদের দাবি, ‘আমরা তো দেশের জন্যই খেলি। নিজের জন্য তো কখনো খেলি না।’ দেশের জন্য খেলার পরও এমন কথা শুনতে হবে তার জন্য প্রস্তুত নন তারা। একই সঙ্গে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয়ও আছে। এ কারণে, সংবাদ সম্মেলনে হয়তো বা ভিন্ন কোনো শর্ত জুড়ে দিতে পারেন ক্রিকেটাররা এবং সিদ্ধান্ত নিতে পারেন- ওই শর্তগুলো না মানা পর্যন্ত তারা বোর্ডের সঙ্গে সমঝোতায় বসবেন না।

নতুন কাগজ/আরকে