• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

রাত ৪:২৭

শেরপুরে বাবা- মাসহ ‘ধর্ষক’ গ্রেপ্তার


গ্রেপ্তাররা হলেন- আজিজুল হক (১৯), তার বাবা আলম মিয়া (৪০), মা আছমা বেগম (৩০), মামা দুলাল মিয়া (৪০) ও চাচা নুরুল হক (৪০)।

আজিজুল শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজের গ্রাম উপজেলার পোড়াগাঁও ইউনিয়নের আন্ধারুপাড়া বুরুঙ্গায় প্রতিবেশী ওই শিশুকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ। তাকে পালাতে সহায়তা করার অভিযোগ আনা বাবা-মাসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে।

ধর্ষিতা শিশুটি স্থানীয় স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। তাকে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে নালিতাবাড়ী থানার ওসি বছির আহমেদ বাদল জানিয়েছেন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার শিশুটি আন্ধারুপাড়া এলাকায় তার মামার বাড়িতে যায়। পরদিন শুক্রবার সন্ধ্যায় মামার বাড়ি থেকে নিজেদের বাড়িতে ফেরার পথে একই গ্রামের পাশের বাড়ির আজিজুল একা পেয়ে ফাঁকা মাঠের পাশে ধান ক্ষেতে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। ওই সময় শিশুটির ডাক-চিৎকারে তার বাবা-মা ও আত্মীয়-স্বজনরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

“এদিকে আজিজুলের বাবা-মাসহ স্বজনরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করে।”

পরে রাতেই শিশুটিকে নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পুলিশ খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে পাঠায়।

এ বিষয়ে শুক্রবার রাতে ওই শিশুর বাবা বাদী হয়ে আজিজুলসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করে।

শনিবার গাজীপুরের টঙ্গী থেকে আজিজুল হককে এবং এলাকার বিভিন্ন স্থান থেকে অপর আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।