• ঢাকা
  • শনিবার, ১৬ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৮ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

সকাল ৮:১৪

শিক্ষিকার বাসায় ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, উত্তাল রাবি


বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃত বিভাগের অধ্যাপক ড. বিথীকা বণিকের পদত্যাগ ও তার বাসায় ঘটে যাওয়া শ্লীলতাহানির বিচারের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শ্যামল বণিক অধ্যাপক ড. বিথীকা বণিকের ভাই।

বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। পরে সেখান থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রী হলের সামনে অবস্থান নেন তারা। সংস্কৃত বিভাগের অধ্যাপনার পাশাপাশি অধ্যাপক ড. বিথীকা বণিক এই হলের প্রাধ্যক্ষ্যের দায়িত্বে আছেন। সেখানে কিছু সময় অবস্থান শেষে আবারও বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে প্রশাসন ভবনের দিকে চলে আসেন শিক্ষার্থীরা।

এ সময় বিভিন্ন ধরনের প্লাকার্ড হাতে ‘ধর্ষকের বিরুদ্ধে, রুখে দাঁড়াও এক সাথে’ ‘ক্ষমা চাও, চাইতে হবে’, ‘পদত্যাগ, পদত্যাগ, করতে হবে, করতে হবে’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন তারা।

বিক্ষোভ প্রদর্শনকালে শিক্ষার্থীরা অধ্যাপক বিথীকা বণিকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তোলেন। তারা বলেন, ম্যাডাম হলে কোনো ছাত্রীকে সিট দেয়ার সময় জিজ্ঞেস করেন বাসায় কাজ করতে পারবে কি না, বাসায় কাজ করতে রাজি হলে তাকে সিট দেন।

তারা জানান, মঙ্গলবার রাতের ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ম্যাডামের বাচ্চাদের বাসায় গিয়ে পড়াতেন। সন্ধ্যায় পড়ানোর কথা থাকলেও ওই দিন রাতেও তাকে হলে ফিরতে দেয়া হয়নি। ওই ছাত্রী বারবার হলে ফেরার অনুরোধ করার পরও তাকে আসতে দেয়া হয়নি।

এদিকে অভিযোগ ওঠার পরে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে মাদকাসক্ত তকমা লাগিয়ে ভাইয়ের সম্পৃক্ততা এড়ানোর চেষ্টা করছেন অধ্যাপক বীথিকা বণিক- এমন দাবিও করছেন আন্দোলনকারীরা। এ জন্য তাকে জনসমক্ষে ক্ষমা চেয়ে পদত্যাগ ও ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন শিক্ষার্থীরা।

তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন। এতে ইংরেজি বিভাগের পাশাপাশি অন্যান্য বিভাগের অন্তত ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন।