• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ১৩ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১লা জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৪:০৫

লন্ডন শহরের পাবলিক বাস-সার্ভিসে ইসলাম ধর্মের কথা লেখা


লন্ডন শহরের পাবলিক ট্রান্সপোর্টের বাসে আল্লাহ, মুহাম্মদ (সা.), সুবহানাল্লাহ’সহ ইসলামধর্মের দিকে আহ্বান ও উদ্বুদ্ধকারী বিভিন্ন কথা লেখা থাকে; যা সচরাচর পথচারী, যানবাহনের যাত্রী ও অন্যদের দৃষ্টি কাড়ে।

লন্ডন শহরের পাবলিক ট্রান্সপোর্টের গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যবস্থা হলো বাস-সার্ভিস। বাসগুলোতে সাধারণত ক্যালিগ্রাফি করে কোরআনের আয়াতের অর্থ, হাদিসের উদ্ধৃতি ও ইসলামধর্ম বিষয়ক বিভিন্ন কিছু লেখা থাকে। ব্যবস্থাপকরা মনে করেন, এগুলোর মাধ্যমে লন্ডনসহ ব্রিটেনের বড় বড় পাঁচটি শহরে ইসলামফোবিয়া মোকাবেলায় ও নেতিবাচক পরিবেশ পরিবর্তনে দারুণ উপলক্ষ তৈরি হবে। মূলত ইসলামধর্মের প্রচারের অংশ হিসেবে ও সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধে আক্রান্তদের সাহায্যের জন্য ব্রিটেনের বিখ্যাত ও বড়সড় কিছু মুসলিম দাতব্য প্রতিষ্ঠান এসব কিছুর আয়োজন ও ব্যবস্থা করে থাকে। এর মাধ্যমে তারা অসহায় ও দারিদ্রদের সেবাপ্রদান এবং জাকাতের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার চেষ্টা করে।

লন্ডন সিটির বিভিন্ন বাসে যেই লেখাগুলো রয়েছে তার মধ্যে ‘Prophet Muhammad, The light of life Teacher of truth. A blessing for the believers’ ‘For the love of Allah’ ‘O Mankind, Spread peace & feed people’

দাতব্য সংস্থাগুলোর ব্যবস্থাপকরা আশা করেন, এ ধরনের চমৎকার আয়োজনের মাধ্যমে ব্রিটিশ মুসলিমদের পাশাপাশি স্থানীয়রা শরণার্থী ও দরিদ্রদের প্রতি সহযোগিতাপ্রবণ হবেন। এ ধরনের প্রচারাভিযান প্রসঙ্গে যুক্তরাজ্যের দাতব্যসংস্থা ‘ইসলামিক রিলিফ ইউকে’র পরিচালক ইমরান ম্যাডেন বলেন, ‘এভাবে প্রচারাভিযানকে নেতিবাচক ও বৈরি পরিবেশ বদলানোর প্রচেষ্টা বলতে পারেন।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা গেছে, শহরটির নির্বাচিত প্রথম মুসলিম মেয়র সাদিক খান লন্ডনে বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য আলাদা ক্যাটাগরি তৈরি করে এ ধরনের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এ কারণে তাকে অহেতুক অভিযুক্তও করা হয়েছিল। ব্রিটেনের ‘ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন’ (টিএফএল) শহরের বাসগুলোতে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন, স্লোগান ও বক্তব্য প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তবে ইসলাম ধর্মীয় এসব বিজ্ঞাপন প্রকাশে টিএফএল কর্তৃপক্ষ বাধা দেয় না। বাসগুলো সাধারণত লন্ডন, বার্মিংহাম, ম্যানচেস্টার, লিসেস্টার এবং ব্র্যাডফোর্ডে যাত্রী পরিবহন করে করে থাকে।