• ঢাকা
  • সোমবার, ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

রাত ৪:০২

মেয়েকে আশ্রমে ফেলে পালালেন মা


ডেস্ক : অসহায় ও আশ্রয়হীনদের বিনামূল্যে আশ্রয় দেওয়ায় অনেক সময় আশ্রয়দাতাদেরই পড়তে হচ্ছে বিপদে। সম্প্রতি পাবনা শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূলচন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমে এমন ঘটনা ঘটছে।
আশ্রমে আশ্রয় নিয়ে সুযোগে বুঝে এক মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণীকে ফেলে পালিয়েছে তার মা। তরুণী নিজে থেকে কোনো কথা বলেন না। আবার প্রশ্ন করলেও কোনো উত্তর দেন না। এখন সেই তরুণীকে নিয়ে বেকায়দায় পড়েছে আশ্রম কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় পাবনা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে আশ্রম কর্তৃপক্ষ।

আশ্রম কর্তৃপক্ষ জানান, গত ১২ জুন মানসিক ভারসাম্যহীন এক তরুণীকে নিয়ে তার মা পরিচয়ে এক মহিলা আশ্রমে আশ্রয় নেন। পরে সুযোগ বুঝে ওই মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণীকে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে তার মা।

জানা গেছে, সারা দেশ থেকে প্রতিদিন অসংখ্য মানসিক রোগী চিকিৎসার জন্য পাবনার হেমায়েতপুরে শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র আশ্রম সংলগ্ন মানসিক হাসপাতালে আসেন। হাসপাতালে স্থান সংকুলান সাপেক্ষে নতুন রোগী ভর্তি করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। যারা ভর্তি হতে পারে না কিংবা অসময়ে আসেন মানসিক হাসপাতালে তাদের জন্য কোনো থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা না থাকাই শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূলচন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রম কর্তৃপক্ষ বিনামূল্যে তাদের থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করে থাকে। আর এই আশ্রয় গ্রহণের সুযোগ নিয়ে ওই মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণীকে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে তার মা।

এ ব্যাপারে শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল-চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার রায় বলেন, আশ্রমে যারা আশ্রয় নেন তাদের বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু এই ভদ্রমহিলা আসার পরপরই অন্য রোগীর স্বজনদের কিছু সময়ের জন্য তার মেয়েকে দেখতে বলে কিছু কাগজ আনার কথা বলে পালিয়ে গেছে। যে কারণে তার তথ্য সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেও তার নাম ঠিকানা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, সেবাই আমাদের ধর্ম, আমাদের সাধ্যমতে আমরা অসহায় মানুষদের সহযোগিতা করে থাকি। অসহায় পরিবারটি উপায় না পেয়ে হয়তো মেয়েকে রেখে পালিয়েছে। আইনগত ঝামেলা এড়াতে থানায় জিডি করা হয়েছে। আশা করছি এই পরিবারের সদস্যরা তার সন্তানের জন্য আবার ফিরে আসবেন।

মেয়েটির সুচিকিসৎসার জন্য সরকারি বে-সরকারি সংস্থা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।