ঢাকা রবিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

রাত ৪:৪২
সারা বাংলা

মুক্তিপণ না পেয়ে ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

বরিশাল প্রতিনিধি |
বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার রমজানকাঠী সংলগ্ন সন্ধ্যা নদী থেকে নয়ন হাওলাদার (১৫) নামে এক স্কুল ছাত্রের বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

বাবুগঞ্জ থানার ওসি দিবাকর চন্দ্র দাস বলেন, “নিহত শিক্ষার্থীর মাথা, গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের একাধিক কোপের চিহ্ন রয়েছে।

নিহত নয়ন উজিরপুর উপজেলার বামরাইল এবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র এবং একই উপজেলার ভরসাকাঠী এলাকার সোবাহান হাওলাদারের ছেলে। তার বাবা এবং মা দুইজনই চট্টগ্রামে গার্মেন্টস চাকরি করেন।

এর আগে গত শনিবার বিকেলে দাদার সঙ্গে কৃষি জমিতে শাক তোলা অবস্থায় তাকে অজ্ঞাতনামা কেউ ডেকে নেয়। এরপর থেকে তার বাবার মুঠোফোনে কল দিয়ে নয়নের মুক্তির জন্য ২০ লাখ টাকা দাবি করেন অজ্ঞাত দুষ্কৃতকারীরা।

উজিরপুরের বাসিন্দা এমদাদুল কাশেম সেন্টুর বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, নয়ন তার দাদা ও বোনের সঙ্গে গত শনিবার বিকেলে বাড়ির পাশের কৃষি জমিতে শাক তুলছিল। এ সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাকে ডেকে নেয়। পরে নয়নের মুক্তিপণ বাবদ তার বাবা সোবাহান হাওলাদারের কাছে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। সোবাহান হাওলাদার স্থানীয় সংবাদ কর্মীদের এই তথ্য জানিয়েছেন।

মুক্তিপণ না পেয়ে রাতের যে কোনো সময় দুর্বৃত্তরা রমজানকাঠীর একটি পাটক্ষেতে নিয়ে নয়নকে কুপিয়ে এবং গলাকেটে হত্যা করে। পরে একটি বস্তায় ইট ঢুকিয়ে নয়নকে বস্তার মধ্যে ভরে পাটক্ষেত সংলগ্ন সন্ধ্যা নদীতে ফেলে দেয় তারা। বস্তার মধ্যে নয়নের লাশ ফুলে উঠলে স্থানীয়রা ওই বস্তাটি দেখে পুলিশে খবর দেয়।

বাবুগঞ্জ থানার ওসি দিবাকর চন্দ্র দাস বলেন, “নয়নকে কারা ডেকে নিয়েছিল, কারা তার বাবার কাছে মুক্তিপণ দাবি করেছিল সবকিছু তদন্ত চলছে।”

এ ঘটনায় মামলা দায়েরসহ অভিযুক্তদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন বাবুগঞ্জ থানার ওসি।