• ঢাকা
  • সোমবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৯শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

রাত ২:৫৬

মিগারমাতা বিশাখা কর্তৃক প্রবর্তিত নিয়মে কঠিন চিবর দানোৎসব


খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে “সাম্মা দিঠটি ফাউন্ডেশন’ ও মিলনপুর বন বিহার পরিচালনা কমিটি’র যৌথ ব্যবস্থাপনায় মিগারমাতা বিশাখা কর্তৃক প্রবর্তিত নিয়মে মিলনপুর বন বিহারে কঠিন চীবরদান উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা হতে হাতে তৈরী চড়কার মাধ্যমে তুলা থেকে সুতা বের করে সুতায় রং করা ও (কোমর তাঁত) বেইন বুননের মাধ্যমে চিবর তৈরী শুরু হয়। শনিবার সকাল ৯টায় ধর্মীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে চিবরদান অনুষ্ঠানের ১ম পর্ব শুরু হয়। ১ম পর্বে আমন্ত্রিত ভিক্ষুসংঘকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানানোর পর পঞ্চশীল গ্রহন এবং উপস্থিত ভিক্ষু সংঘ কর্তৃক দেশনা শ্রবণ করা হয়।

হাজারো দায়ক-দায়িকাদের মাঝে ধর্মীয় দেশনা প্রদান করেন, তক্ষশীলা বন বিহারাধ্যক্ষ শ্রীমৎ করুণাবর্ধন মহাস্থবির ও রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারের শ্রীমৎ সত্যজগৎ স্থবির। এসময় সংঘ প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গামাটি রাজ বন বিহার এর আবাসিক প্রধান শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার মহাস্থবির। অন্যান্যের মধ্যে মিলনপুর বন বিহারাধ্যক্ষ শ্রীমৎ ধর্মতিষ্য মহাস্থবিরসহ বিভিন্ন বন বিহার থেকে আগত ভিক্ষুগণ উপস্থিত ছিলেন।

দুপুর ২টায় আবারো ধর্মীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে “সাম্মা দিঠটি ফাউন্ডেশন” এর সদস্য সুফল চাকমা ও আবৃত্তি চাকমা’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। এ সময় সংঘ প্রধান হিসেবে রাঙ্গামাটি রাজ বন বিহার এর আবাসিক প্রধান শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার মহাস্থবির। এতে দায়ক প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহালছড়ি সেনা জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর আতিকুল ইসলাম ও মহালছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান বিমল কান্তি চাকমা।

ধর্মীয় আলোচনা সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন, মিলনপুর বন বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি শান্তি মোহন চাকমা, খাগড়াছড়ি সরকারী কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ বোধিসত্ব দেওয়ান ও খাগড়াছড়ি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দেব ব্রত চাকমা প্রমূখ।

আলোচনা শেষে চিবর দান, সংঘ দান, অষ্ট পরিষ্কার দান, আকাশ বাত্তি দান’সহ নানাবিধ দানানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। সর্বশেষে সকল জাতিসত্বার মঙ্গলার্থে হাজারো ধর্মপ্রাণ দায়ক-দায়িকাদের উদ্দেশ্যে ভিক্ষুসংঘ কর্তৃক প্রদত্ত বাণী শ্রবণ করা হয়। এ সময় হিতসূখ কামনায় ভিক্ষু সংঘের উদ্দেশ্যে সকলেই সমবেত প্রার্থনা করেন।