• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

রাত ৩:৫২

মাদক বিক্রিতে বাধা দেয়ায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩,আটক-১


বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের মংলার কানাইনগর এলাকায় শুক্রবার রাতে মাদক বেচা-কেনাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৩জন রক্তাক্ত জখম হয়েছে। এসময় হামলাকারী মাদক ব্যাবসায়ী মামুনকে এলাকাবাসী ধরে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পুলিশ ও প্রত্যাক্ষদর্শীরা জানায়, উপজেলার চাদঁপাই ইউনিয়নের কানাইনগর গুচ্ছগ্রাম এলাকায় প্রতিনিয়ত মাদক বিক্রি করতো সিগনাল টাওয়ার গ্রামের সোহরাফ হোসেন’র ছেলে মামুন তারুকদার (৩২)। এতে ওই গুচ্ছগ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা রাজ্জাক এ মাদক বিক্রিতে বাধা দিলে দুজনের মধ্যে বাক-বিতান্ড হয়। এক পর্যায় মাদক ব্যাবসায়ী মামুনের হাতে থাকা দাও দিয়ে রাজ্জাককে কোপাতে থাকে। শ্যালোক জাহিদসহ কয়েকজন যুবক রাজ্জাককে উদ্ধার করতে আসলে তাদেরকেও এলাপাতারী কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে মামুন। এসময় এলাকাবাসী ছুটে এসে রাজ্জাক (২৮) ও জাহিদ (৩০) কে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার কওে মংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেষে ভর্তি করে।

এদিকে এলাকাবাসী একাত্রীত হয়ে রাতেই মাদক ব্যাবসায়ী মামুনকে ধাওয়া করে ধরে গনধোলাই দেয় এবং দাওসহ তাকে আটকে রাখে। পুলিশকে খরব দিলে, পুলিশ এসে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার কওে থানায় নিয়ে যায়। পরে আটক মামুনকেও চিকিৎসার জন্য প্রথমে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

তবে মামুনের অবস্থা অবনতী হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মংলা থানার সেকেন্ড অফিসার মোঃ জাহাঙ্গির হোসেন জানায়, কানাইনগর গুচ্ছগ্রামবাসী মাদক ব্যাবসা নিয়ে সংগর্ষেও ঘটনায় মামুনকে ধরে পুলিশকে খবর দেয় এলাকাবাসী। পুলিশ গিয়ে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।