• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ১৩ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১লা জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৪:০৬

ভোট-পূজা একসঙ্গে হতে সমস্যা নেই


নতুন কাগজ ডেস্ক: পূজার জায়গায় পূজা আর নির্বাচনের জায়গায় নির্বাচন চলবে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর।
মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) ঢাকা সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করার জন্য রিট আবেদন আদালত খারিজ করে দেয়ায় শাহবাগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর অবরোধ চলছে।
এসব নিয়ে ইসি সচিব সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ বিষয়ে নতুন করে বক্তব্য কোনো নেই। কারণ নির্বাচন কমিশন আইন, সরস্বতী পূজা, এসএসসি পরীক্ষা, সব কিছু বিবেচনায় নিয়ে সর্বোত্তম দিন যেটা, সে দিনটাই ঠিক করা হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘তারা আদালতে গিয়েছেন। আদালত উভয়পক্ষের কথা শুনে তারাও বিবেচনা করে দেখেছেন যে, ৩০ জানুয়ারি সর্বোত্তম দিন। তারা কনভিন্সড, যে কারণে বলেছেন যে ৩০ জানুয়ারি ভোট করতে কোনো বাধা নেই।’
সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, ‘পরিস্থিতি অবনতি হবে, কেন এটা বলেছেন তা আমাদের বোধগম্য হয়নি। তারাও যারা ধার্মিক, তারাও জানেন যে, আইন-শৃঙ্খলা মানতে হয়। সবাই সচেতন নাগরিক। নির্বাচন জমে উঠেছে। সবাই নির্বাচনমুখী। আমরা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা আশা করি না। এরপরও তারা আদালতে গেছেন। যে রায় এসেছে তারাও নিশ্চয় তা মাথা পেতে নেবেন।
আলমগীর বলেন, ‘কমিশন যেটা বলেছে, সব স্কুলে কিন্তু পূজা হয় না। বাকি স্কুলে যেখানে পূজা হবে, সে জায়গাটা ছেড়ে দেবে। আবার সরকারি অনেক অফিস, আদালতেও পূজা হয়। সেখানে অনেক রুম থাকে। তাই যেখানে পূজা হবে, সে রুম ছেড়ে দিয়ে অন্য রুমে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হবে। পূজার জায়গায় পূজা চলবে, নির্বাচনের জায়গায় নির্বাচন হবে।’
তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের ভোটগ্রহণ ও সরস্বতী পূজা একসঙ্গে হতে কোনো সমস্যা নেই।’
শাহবাগে অবরোধ করছে রায়ের পর, পরে কী হতে পারে, কী ব্যবস্থা নেবে ইসি- এমন প্রশ্নের জবাবে মো. আলমগীর বলেন, আদালত যেখানে রায় দিয়েছে, সেখানে আপনাদের-আমাদের-কমিশনের তো কোনো বিষয় নেই।

নতুন কাগজ/আরকে