• ঢাকা
  • বুধবার, ১৩ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

সকাল ১০:৩০

বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনায় নায়িকা শিমলাকে জিজ্ঞাসাবাদ


নতুন কাগজ ডেস্ক: চট্টগ্রামে বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনায় কমান্ডো অভিযানে নিহত পলাশ আহমেদের স্ত্রী চিত্রনায়িকা শামসুর নাহার শিমলাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে।
সকাল ১০টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক রাজেশ বড়ুয়া।
শিমলা সাংবাদিকদের বলেন, পলাশ মানসিক ভারসাম্যহীন। কেন সে বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেছেন তা বলতে পারব না। আগেই আমাদের ডিভোর্স হয়েছিল। বিয়ের পর মনে হয়েছিল ওর মানসিক সমস্যা আছে। তাই বিরক্ত হয়ে ডিভোর্স দিয়েছিলাম।
২৪ ফেব্রুয়ারি বিমান ছিনতাইয়ের এই ঘটনা বিশ্বব্যাপী আলোড়ন তোলে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাইগামী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বোয়িং-৭৩৭ উড়োজাহাজ মাঝআকাশে ছিনতাইয়ের চেষ্টা হয়। উদ্ধারের দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে কমান্ডো অভিযানে নিহত হন ‘পিস্তলধারী’ এক যুবক। পরে পরিচয় জানা যায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের দুধঘাটা এলাকার পিয়ার জাহান সরদারের ছেলে পলাশ আহমেদ। একই সঙ্গে শোনা যায় ছেলেটি তার স্ত্রী শিমলার জন্য বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। যদিও পলাশের ব্যবহৃত পিস্তলটি প্লাস্টিকের ছিল বলে জানা যায়। বিষয়টি নিয়ে ওই সময় বিভিন্ন গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন শিমলা। বরাবরই সে তার স্বামীর বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান। এরপর ২৫ আগস্ট দেশে ফেরেন শিমলা।
ঘটনাটি নিয়ে পরবর্তীতে পলাশসহ বেশ কয়েকজনকে আসামি করে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা থানায় ২৫ ফেব্রুয়ারি মামলা করে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। সন্ত্রাসবিরোধী আইনের ১৩ ও ৬ (১) ধারা এবং বিমান-নিরাপত্তা বিরোধী অপরাধ দমন আইনের ১১ (২) ও ১৩ (২) ধারায় দায়ের করা মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটকে। তারা পলাশের বেশ কয়েকজন আত্মীয়স্বজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এরই ধারাবাহিকতায় শিমলাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

নতুন কাগজ/আরকে