• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৬শে মে, ২০২০ ইং | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১লা শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী

রাত ১২:৪০

বাংলাদেশকে ফ্রিতে চিকিৎসা সরঞ্জাম দেবে জ্যাক মা


বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ মোকাবেলায় সহায়তা করার জন্য জ্যাক মা ফাউন্ডেশন এবং আলিবাবা ফাউন্ডেশন আজ থেকে বাংলাদেশসহ ১০টি মধ্য, দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোতে প্রচুর পরিমাণে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরবরাহ অনুদানের পরিকল্পনা করেছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য দেয় দারাজ বাংলাদেশ।

ফাউন্ডেশনটি ১৮ লক্ষ মাস্ক, ২ লক্ষ ১০ হাজার পিস কোভিড-১৯ টেস্ট কিট, ৩৬ হাজার পিস প্রতিরক্ষামূলক পোশাক, ভেন্টিলেটর, ফোরহেড থার্মোমিটার এবং অন্যান্য চিকিৎসা এবং মহামারি প্রতিরোধের উপকরণ দান করার বিষয়ে ইতিমধ্যে আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, কম্বোডিয়া, লাওস, মালদ্বীপ, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে।

অনুদান বিতরণের বিষয়ে বিপুল সংখ্যক দেশ তাদের ভৌগোলিক দূরবর্তিতার কারণে একটি লজিস্টিক এবং পরিবহন চ্যালেঞ্জ উপস্থাপন করেছিল যা কাটিয়ে উঠতে ফাউন্ডেশনটি মালয়েশিয়ায় ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত ইডব্লিউটিপি (ইলেকট্রনিক ওয়ার্ল্ড ট্রেড প্ল্যাটফর্ম) কে সরবরাহ সহায়ক হিসেবে ব্যবহার করবে।

জ্যাক মা তার টুইটার বার্তায় বলেছেন, “আমাদের এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য একসাথে কাজ করতে হবে, এতগুলো দেশে দ্রুত অনুদান সরবরাহ করা সহজ কাজ নয়, তবে আমরা এটি সম্পন্ন করব। এগিয়ে যাও, এশিয়া! “

ইডব্লিউটিপি-এর সেক্রেটারি জেনারেল জান্তাও সং বলেছেন, “এই মহামারির প্রাদুর্ভাবের কারণে গ্লোবাল লজিস্টিক সিস্টেম একটি বিরাট চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। ইডব্লিউটিপি-এর সহায়তায় আমরা প্রত্যন্ত এলাকার মানুষ যাদের সবচেয়ে বেশি অনুদান প্রয়োজন সেখানে আমরা দ্রুত পরিবহন এবং ডেলিভারি দেওয়ার যথাসাধ্য চেষ্টা করছি।”

এই সপ্তাহের শুরুতে ফাউন্ডেশনগুলো মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড এবং ফিলিপাইনে চিকিৎসা সরবরাহের অনুদানের ঘোষণা করেছে এবং গতি পরিবহন ও সরবরাহের জন্য ইডব্লিউটিপির লজিস্টিকের দক্ষতার সঞ্চার করেছে। ইডব্লিউটিপি অংশীদার দেশগুলোর ক্ষুদ্র সংস্থাগুলোকে তাদের পূর্ণ অর্থনৈতিক সম্ভাবনা উপলব্ধি করার জন্য প্রতিবন্ধকতা হ্রাস করতে সাহায্য করে এবং বৈশ্বিক বাণিজ্য পরিচালনকে আরও সহজ করে তোলে।