• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই সফর, ১৪৪১ হিজরী

রাত ২:৩৬

বর্ষবরণ উৎসবে মানুষের জনস্রোত


রাজধানীর ঐতিহাসিক রমনা বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণের মধ্য দিয়ে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ শুরু হয়েছে। বর্ষকে বরণ করে নিতে রমনা, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে হাজারো নারী-পুরুষ ও শিশুর ঢল নেমেছে।দেখা যায়, রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ জায়গা শাহবাগ মোড় দিয়ে রমনা বটমূল এর দিকে ছুটছেন সাধারণ মানুষ। বড়দের হাত ধরে ছোট শিশু থেকে শুরু করে পরিবারের অন্য সকল সদস্যদের নিয়ে উৎসবে যোগ দিচ্ছেন সকলে। প্রকৃতির নিয়মেই সকাল থেকেই খরা রোদ। সেসব উপেক্ষা করে রাজধানীতে বিপুল প্রাণের এই উৎসবে শামিল হতে ভোর থেকেই সুসজ্জিত হয়ে পথে নেমেছেন অগণিত মানুষ।

সবার মধ্যে যেন নতুনকে বরণ করে নেওয়ার একটা উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে।নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে মহিউদ্দিন বলেন, ‘নতুনকে গ্রহণ করে নেওয়ায় যে বাঙালির সংস্কৃতি, হাজার বছরের সংস্কৃতির টানে ঘর থেকে বের হয়েছি আমরা।’আবিহা নাহার বলেন, ‘আমাদের অস্তিত্বের সাথে মিশে আছে দিনটি। এটি আমাদের শিকড়। বাঙালির বাঙালিপনা ধরে রাখতে আমাদের এতসব আয়োজন।’

এদিকে, বৈশাখের এই দিন উপলক্ষে খাজা, গজা, বাতাসা, তালপাতার হাতপাখা, নলখাগড়ার বাঁশি, টমটম গাড়ি আবহমানকালের বাঙালি লোক ঐতিহ্যের নানা উপকরণের পসরা সাজিয়ে বসেছেন মেলায় আগত বিক্রেতারা। খাবারের তালিকাতে প্রাধান্য পাচ্ছে ভর্তা-ভাজি ও ইলিশ মাছ, সেই সঙ্গে শোভা পাচ্ছে নতুন আম দিয়ে রান্না করা ডাল বাঙালির ঐতিহ্যবাহী পদ।অন্যদিকে, ছায়ানট ১৯৬৭ সালে প্রথম রমনা বটমূলে পহেলা বৈশাখে প্রভাতি