• ঢাকা
  • সোমবার, ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

রাত ২:৩০

পিঁচঢালা পথে পড়ে থাকলো মেধাবি ছাত্র রাকিবুলের ভবিষ্যৎ


হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : পিঁচঢালা পথে পড়ে থাকলো দিনাজপুরের হিলির বি,ইউ,টি’র পড়–য়া মেধাবি ছাত্র রাকিবুল আলমের ভবিষ্যৎ। সড়ক দুর্ঘটনায় তার বাম পায়ের পাঁচটি অংশ ভেঙ্গে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।ইতোমধ্যে ১০ লাখ টাকা ব্যয় করেও কোন ভাল ফল হয়নি।

রাকিবুল আলম বাংলাদেশ ইউরিভারসিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি’র বিবিএ প্রোগামের ২য় বর্ষের মেধাবি ছাত্র (যার আইডি নং-১৬১৭৩১০১০৫৯)।সে হিলি-হাকিমপুর উপজেলার সীমাস্তবর্তী মধ্য বাসুদেবপুরের ফরিদ খানের ছেলে।

রাকিবুল আলম জানায়,১৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর হিলি থেকে এস,আর পরিবহন ( ঢাকা-মেট্রো-ব-১৪-৪৭৬৪) নৈশ্য কোচ যোগে আমি শিক্ষা স্থলে যাত্রা শুরু করি। পথেমধ্যে রাত আনুমানি দেড়টার দিকে বগুড়ার ধুনট মোড়ে অসাবধানতায় চালক ওই স্থানে দাঁড়িয়ে থাকা কাভার্ড ভ্যানে পিছন দিক থেকে সজরে আঘাত করলে দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় গাড়ি চালক ।

ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজনদের সহযোগীতায় বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। কোচের সুপার ভাইজার জাহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে মারা যায়। আমার বাম পার পাঁচটি অংশে ভেঙ্গে যায়। মধ্যবৃত্ত পরিবারের অভাবি সংসারে আমার জন্য আমার বাবা কয়েক লাখ টাকা ব্যয় করে ৪টি অপারেশন করেছেন। এবং আরও দু’টি অপারেশনসহ ১০ মাস চিকিৎসাধীন থাকতে হবে।

রাকিবুলের বাবা ফরিদ খান বলেন, এস,আর পরিবহন কতৃপক্ষের আমার ছেলের বিষয়ে কোন মাথা ব্যথা নেই। শত যোগাযোগ করেও প্রতিউত্তর দেয়নি এস,আর পরিবহন কর্তৃপক্ষ। এ ব্যপারে বগুড়ার শেরপুর পুলিশ ফাঁড়িতে গত ০২.০৯.১৮ তারিখে মামলা দায়ের করা হয়,মামলা নং ০৪।