• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

দুপুর ১:২৪

পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নে ১৮০ টাকা


নতুন কাগজ ডেস্ক: পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী ও ইবতেদায়ি পরীক্ষার খাতা পুনর্নিরীক্ষণের জন্য এবারও ১৮০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। কোনো পরীক্ষার্থী তার পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন করতে চাইলে, টেলিটক মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে এ অর্থ পরিশোধ করে আবেদন করতে হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
সূত্র জানায়, আগামী ১৭ নভেম্বর ইংরেজি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা। প্রতিটি পরীক্ষা সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয়ে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলবে। এরপর ১৮ নভেম্বর বাংলা, ১৯ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, ২০ নভেম্বর প্রাথমিক বিজ্ঞান, ২১ নভেম্বর ধর্ম ও নৈতিকতা এবং ২৪ নভেম্বর গণিত পরীক্ষা নেয়া হবে।
পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে কেউ কাঙ্ক্ষিত ফলাফল না পেলে পুনর্নিরীক্ষণের জন্য আবেদন করে থাকে। সব পাবলিক পরীক্ষায় এ সযোগ রয়েছে। সমাপনী ও ইবতেদায়ি পরীক্ষার্থীর জন্যও ২০১৭ সালে এ পদ্ধতি চালু করা হয়।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই) সূত্র জানায়, ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের পঞ্চম শ্রেণির খাতা পুনর্মূল্যায়নের ক্ষেত্রে প্রথমে ১৫০ টাকা নির্ধারণ করা হলেও গত বছর এটি ১৮০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। সম্প্রতি এ পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে একটি সভায় এ বাবদ ২০০ টাকা করার প্রস্তাব করা হলে মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন সে প্রস্তাব বাতিল করে দেন এবং ১৮০ টাকাই রাখেন।
সভা সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি পরীক্ষার পুনর্নিরীক্ষার জন্য ১৮০ টাকা নেয়া হলেও ১০ শতাংশ টেলিটক মোবাইল কোম্পানিকে পরিশোধ করতে হয়। সেক্ষেত্রে ১৬২ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা হচ্ছে আর টেলিটক পাচ্ছে ১৮ টাকা। এটি ২০০ টাকা করে ১০ শতাংশ হারে টেলিটককে ২০ টাকা পরিশোধ ও ১৮০ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেয়া সম্ভব হবে। তাই এ বাবদ ২০০ টাকা নির্ধারণ করার প্রস্তাব করা হয়। পরে এ প্রস্তাব বাতিল করে গতবছরের মতো ১৮০ টাকা চূড়ান্ত করা হয়।
উত্তরপত্রে শিক্ষকদের নেয়া নম্বর পুনরায় গণনা করে পুনর্নিরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদির জাগো নিউজকে বলেন, আগে পঞ্চম শ্রেণির ফলাফলের বিভিন্ন অভিযোগগুলে বিচ্ছিন্নভাবে আমাদের কাছে আসতো। কিছু অভিযোগ পাওয়া যেত আবার কিছু মিসিং হয়েও যেত। অনেক অভিভাবক আবেদন জমা দিতে বিভিন্ন জেলা থেকে ঢাকায় অধিদফতরে চলে আসতেন। এ কারণে খাতা পুনর্নিরীক্ষণ আবেদন মোবাইল এসএমএসের মধ্যেমে চালু করা হয়েছে।
তিনি বলেন, আবেদন বাবদ ১৮০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পরে আবেদন করতে হবে। আবেদনকারীদের খাতার প্রাপ্ত নম্বর পুনরায় গণনা করে ফলাফল প্রকাশ করা হবে।
ফল নিরীক্ষণে চারটি বিষয় দেখা হয়
(১), সব প্রশ্নের উত্তরে নম্বর সঠিকভাবে বসানো হয়েছে কি না। (২), প্রাপ্ত নম্বর গণনা ঠিকভাবে করা হয়েছে কি না। (৩), প্রাপ্ত নম্বর ওএমআর (অপটিক্যাল মার্ক রিডার) শিটে তোলা হয়েছে কি না এবং (৪) নম্বর অনুযায়ী ওএমআর শিটের বৃত্ত ভরাট ঠিক আছে কি না।

নতুন কাগজ/আরকে