• ঢাকা
  • সোমবার, ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১শে সফর, ১৪৪১ হিজরী

সন্ধ্যা ৬:৪৭

নোয়াখালীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে ধর্ষণের অভিযোগ


নোয়াখালী প্রতিনিধি: জমি সংক্রান্ত বিরোধকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে এবার নিজের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছেন রেহানা আক্তার (৪০)। আর পরিকল্পিত ও মিথ্যে মামলায় ফেঁসে যাওয়ার ফন্দি ফিকির জেনে তাৎক্ষণিক জেলার সুধারাম মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরীভুক্তি করেছেন অভিযুক্ত সিরাজ উদ্দিন মাহমুদসহ অন্যান্যরা।

সম্প্রতি সুধারাম থানায় রেহানা আক্তারের দায়ের করা মিথ্যে, বানোয়াট ও ভুয়া খবরাখবর দু’য়েকটি পত্রিকার প্রকাশের প্রতিবাদে বৃহষ্পতিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন সদর উপজেলার পশ্চিম চরউরিয়ার সিরাজ মাষ্টারের বাড়ির অভিযুক্ত পরিবারগুলোসহ এলাকার শতাধিক ব্যক্তি।

এ সময় তারা সাংবাদিকদের সামনে দাবি করেন, তাদের বাড়ির পাশের রেহানা আক্তার (৪০) এর সাথে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। আর এর জের ধরে ওই মহিলা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দপ্তরে তাদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যে অভিযোগ দায়ের করে বারবারই হয়রানি করে চলছে।

তারা বলেন, ইতোমধ্যে ওই মহিলা নিজের সৃষ্ট অসৎ চরিত্র উন্মোচিত করে সিরাজ উদ্দিন হোসেন, তার সহোদর সফিক উল্যাহ, ৬৫ বছর বয়স্ক আজিজুল হক, সামছুল হক, সেলিম, মিন্টু, ফারুককে জড়িয়ে ধর্ষণের অভিযোগ রচনা করেন। সফিক দাবি করেন, তারা পরষ্পর আপন ভাই, ভাতিজা ও চাচা। ওই মহিলা নিজের বাজে চরিত্রের বহি:প্রকাশ ঘটিয়ে তাদের ফাঁসাতে এরুপ নাটকের সৃষ্টি করেন।

তাদের দাবি, এ মহিলা দুষ্ট প্রকৃতির হয়। যে কারণে কয়েক বছর আগে তার স্বামী তাকে ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন। অবশ্য, এ সময় ওই মহিলার বাড়ির ঘর-দরজা বন্ধ দেখা গেছে। খোঁজ নিয়ে মহিলার সন্ধান মেলেনি।