• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৮ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৩শে সফর, ১৪৪১ হিজরী

সন্ধ্যা ৬:২৭

নিয়ন্ত্রণে কুমিল্লা ইপিজেডের আগুন


কুমিল্লা ইপিজেডে আরএন স্পিনিং মিল নামের একটি সুতা কারখানায় ভয়াবহ আগুনের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট ঘটসাস্থলে পৌঁছে আড়াই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

সোমবার (৮ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি

কুমিল্লা ইপিজেড এর এনআর স্পিনিং মিলে লাগা আগুন ৬ ঘন্টায়ও নেভানো সম্ভব হয়নি। রাত দশটা থেকে ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ শুরু করলেও, সর্বশেষ দশটি ইউনিট একযোগে কাজ করছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

রাত সাড়ে ৩টায় কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক রতন কুমার নাথ জানান, ফ্যাক্টরিটির কাঠমো লোহার হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঝুকি নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। তবে রাতের অন্ধকারে আগুন নেভানোর কাজ করতে সমস্যা হচ্ছে।

ভোরের আলো ফোটার সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আরো দ্রুত আগুন নিবার্পন কাজ করতে পারবে। তবে কতক্ষণ নাগাদ আগুণ নেভানো সম্ভব তা তিনি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারেন নি। এছাড়াও তিনি আশ্বস্ত করে আরো বলেন, এই ফ্যাক্টরি থেকে অন্যত্র আগুন ছড়ানোর সম্ভাবনা নেই। এর আগে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা ঘটে নি বলে জানান তারা।

এর আগে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা ঘটে নি বলে জানান তারা।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক রতন কুমার নাথ জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট, চৌয়ারা বাজার ও কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৮ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।