• ঢাকা
  • সোমবার, ৬ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২২শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৩:৩৫

জানেন শীতে দই খেলে কি হয় ?


অন লাইন ডেস্কঃ শরীর ঠাণ্ডা রাখতে দই খাওয়া হয়ে থাকে। আর শীতে গলা ব্যাথা বা ঠাণ্ডা লেগে যাবার ভয় থেকে দই এড়িয়ে চলেন অনেকেই। তবে জানেন কি? এসময় দইয়ে থাকা ভালো ব্যাকটেরিয়া, ভিটামিন, প্রোটিন, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং পটাসিয়াম আপনাকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।

শীতে নিজেকে চাঙ্গা রাখতে এক বাটি দই প্রতিদিন খেতে পারেন। এসময় ঠাণ্ডাজনিত সমস্যায় ভুগলে দই আপনাকে এ থেকে সহজেই মুক্তি দেবে। তবে আয়ুর্বেদ এবং বিজ্ঞান শীতে দই খাওয়ার ব্যাপারে কি বলে জেনে নিন এবার-

আয়ুর্বেদ 
আয়ুর্বেদ অনুসারে শীতের সময় দই এড়ানো উচিত। কারণ এটি আপনার গ্রন্থি থেকে শ্লেষ্মার নিঃসরণকে বাড়িয়ে দেয়। যারা হাঁপানি, সাইনাস বা সর্দি এবং কাশি জাতীয় শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা এরইমধ্যে ভুগছেন। তাদেরকে দই খেতে বারন করা হয়। বিশেষ করে রাতের সময় দই এড়াতে পরামর্শ দেন তারা।     
 
বিজ্ঞান  
দই পেটের জন্য খুবই উপকারী। এতে থাকা ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি ১২ এবং ফসফরাস শীতের সময়টাতে স্বাস্থ্যের উন্নতি করে। যাদের শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে বিকেলের পর দই না খাওয়াই ভালো। কারণ এটি শ্লেষ্মা সৃষ্টি করতে পারে। এছাড়াও অ্যালার্জি এবং হাঁপানির ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।    

তবে কিছু বিশেষজ্ঞ অন্যথায় বিশ্বাস করেন। তারা বলেন, খাবারটি ভিটামিন সি সমৃদ্ধ হওয়ায় ঠাণ্ডায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য খুবই উপকারী। এটি ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রেখে খেতে হবে।