• ঢাকা
  • সোমবার, ৬ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২২শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৩:৩০

চুনারুঘাটে বালু উত্তোলনে, দুই নেতার অর্থদন্ড


চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ চুনারুঘাটে ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকার মুরিছড়ায় অবৈধভাবে সিলিকা বালু উত্তেলনে স্থানীয় বিএনপি নেতা সুজাতুল হক ভুইয়া ৬ লাখ ও যুবলীগ নেতা আসকির মিয়াকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সত্যজিত রায় দাস তার কার্যালয়ে এ জরিমানা করেন। এর পুর্বে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার জারুলিয়া, গোবরখোলা গাজীপুর, উচমানপুর ও দুধপাতিল এলাকায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

এসময় ৪টি স্থান থেকে অবৈধভাবে সিলিকা বালু উত্তেলনে ১৩টি ড্রেজার মেশিন ভেঙ্গে আগুনে পুড়িয়ে দেয়া এবং ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করা হয়। এছাড়াও ঐসব এলাকায় ১টি এক্সেভেটরসহ প্রায় অর্ধ কোটির টাকার বালু জব্দ করে স্থানীয় ইউপি মেম্বার জালাল মিয়ার জিম্মায় রাখা হয়।

তবে কি পরিমান বালু জব্দ করা হয়েছে তা পরবর্তিতে জানানো হবে বলে জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। জানা যায়, প্রায় ২০ টি স্থানে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করছে স্থানীয় বিএনপি নেতা সুজাতুল হক ভুইয়া তিনি প্রায় ৬ বছর ধরে টানা এ ছড়া থেকে সিলিকা বালু উত্তোলন করে রাতারাতি বনে গেছেন কোটিপতি। বালু নেয়ার পরিবহনে রাস্তাঘাট ভেঙ্গে যাওয়ায় স্থানীয়রা প্রতিবাদ করলে মিথ্যা মামলা দেয়ার হুমকি প্রদাণ করেন প্রভাবশালী সুজাতুল হক ভুইয়া।

উল্লেখ্য, চুনারুঘাট উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ইছালিয়া ছড়া সিলিকা বালু কোয়ারীর ইজারা নেন সুজাতুল হক ভুইয়া নামে স্থানীয় এক বিএনপি নেতা। কিন্তু ইছালিয়া ছড়া থেকে বালু উত্তোলন না করে পাশের মুরিছড়া থেকে দিনরাত ড্রেজার মেশিন বসিয়ে সিলিকা বালু উত্তোলন করছেন তিনি।

যদিও ইজারায় শর্তাবলী থাকে অযান্ত্রিক পদ্ধতি, ড্রেজার ও এস্কেভেটর মেশিন ব্যবহার করে সিলিকা বালু উত্তোলন করা যাবে না। কিন্তু বিধিমালা ও আইন অমান্য করে পরিবেশ, প্রতিবেশ ও প্রাণ প্রকৃতির ক্ষতি সাধন করে জারুলিয়া, গোবরখোলা, গাজীপুর চা বাগান, উচমানপুর ও দধপাতিল এলাকার ৩৯.৩৬ একর ভুমি হতে বালু উত্তোলন করে আসছেন তিনি।

এসব দামী সিলিকা বালু অবৈধভাবে উত্তোলন বন্ধসহ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে সুজাতুল হক ভুইয়ার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবী জানান স্থানীয় এলাকাবাসি।