• ঢাকা
  • সোমবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৯শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

রাত ২:০৩

চট্টগ্রামে ডাকাত চক্রের ১১ সদস্য আটক


নতুন কাগজ ডেস্ক: চট্টগ্রামে অস্ত্র ও ডাকাতির সময় ব্যবহৃত দুটি গাড়িসহ ডাকাত ও ছিনতাইকারী চক্রের ১১ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। ভোরে নগরীর টাইগারপাস এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। রাতভর গাড়ি নিয়ে এই চক্রটি ডাকাতি, ছিনতাই এবং বিদেশগামী যাত্রীদের কাছ থেকে পাসপোর্টসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কেড়ে নিয়ে টাকা আদায় করতো বলে অভিযোগ রয়েছে।
পুলিশ জানায়, সীতাকুন্ডের গহীন পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান থাকলেও ডাকাত ও ছিনতাইকারী দলের সদস্যরা রাত কিছুটা গভীর হলেই গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়ে শিকার ধরার আশায়। বিশেষ করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চলাচলরত যানবাহন, ভোর রাতে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে গাড়ি থেকে নামা যাত্রী এবং রাস্তার পাশের দোকান তাদের মূল টার্গেট। দলের নেতা সালাহউদ্দিন গত আড়াই মাস আগে জামিনে মুক্ত হয়ে এসে দলকে সংগঠিত করে আবারো ডাকাতিতে নেমে পড়ে।
সিএমপি উপ কমিশনার এস এম মেহেদী হাসান বলেন, ‘এদের মূল টার্গেট আন্ত জেলা থেকে আসা বিভিন্ন যাত্রী যারা ভোরবেলা নামে।’
ডাকাত দলের এক সদস্য বলেন, ‘যাত্রীরা গাড়ি থেকে নেমে রিকশায় উঠলে আমরা ছিনতাই করি।’ প্রাইভেট কার নিয়ে যাই। সড়ক ফাঁকা হলে যাত্রীদের টার্গেট করতাম।’
ভোররাতে বিদেশীগামী কিংবা বিদেশ যাওয়া যাত্রীদেরও শিকারে পরিণত করতেন এই দলের সদস্যরা। কেড়ে নিতো পাসপোর্টসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। এরপর পাসপোর্টে থাকা স্বজনদের কাছে ফোন দিয়ে বিকাশের মাধ্যমে আদায় করতো লাখ লাখ টাকা। গত এক মাসে এই দলের বিরুদ্ধে ১৫টির বেশি ছিনতাই এবং ডাকাতির অভিযোগ রয়েছে বলে জানিয়েছেন সিএমপি কোতোয়ালী থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহসিন।
গ্রেফতারকৃত ১১ জনের বিরুদ্ধে বৃহত্তর চট্টগ্রামের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সে সাথে নগরীর কোতোয়ালী থানায় নতুন করে আরো দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নতুন কাগজ/আরকে