• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই সফর, ১৪৪১ হিজরী

রাত ২:১০

কুড়িগ্রামে ধর্ষণের চেষ্টার ১৬ দিনেও মামলা নেয়নি পুলিশ


রৌমারী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা
দিনমজুর স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টায় গত ২ এপ্রিল রাজিবপুর থানায় উপস্থিত হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন ওই গৃহবধূ। এ ঘটনার ১৬ দিন অতিবাহিত হলেও মামলা নেননি কুড়িগ্রামের রাজিবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রবিউল ইসলাম। বুধবার ওই গৃহবধূর স্বামী বাহার আলী রৌমারীর সাংবাদিকদের নিকট এমন অভিযোগ করেন। বাহার আলীর বাড়ি রাজিবপুর উপজেলার প্রত্যন্ত চরাঞ্চল মদনেরচর গ্রামে।

বাহার আলী অভিযোগ করে বলেন, কাজের জন্য বছরের অনেক সময় আমাকে বাড়ির বাইরে থাকতে হয়। এতে আমার স্ত্রীর প্রতি কুনজর পড়ে একই গ্রামের রহম আলীর ছেলে হিসাব উদ্দিনের। সে আমার স্ত্রীকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করার প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। স্ত্রী বিষয়টি আমাকে জানালে স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করার চেষ্টা করি। এরই এক পর্যায়ে গত ১ এপ্রিল আমার অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে রাত ৮টার দিকে আমার ঘরে ঢুকে তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এতে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে হিসাব উদ্দিন পালিয়ে যায়। বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে স্থানীয়দের জানাই এবং থানায় অভিযোগ করি। কিন্তু পুলিশ আমার মামলাটি নিচ্ছে না। আমি গরীব মানুষ। তাই বলে কি আমি বিচার পাব না!

রাজিবপুর থানার ওসি রবিউল ইসলামের সঙ্গে মুঠো ফোনে কথা বললে তিনি বলেন, তারা অভিযোগ দিয়েছে ধর্ষণের চেষ্টা, আর মুখে বলছে ধর্ষণ করা হয়েছে। বিষয়টি আমরা তদন্ত করছি। অভিযোগ সঠিক হলে মামলা নেওয়া হবে।