• ঢাকা
  • রবিবার, ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

সকাল ৬:৫৮

কাশিয়ানীর নায়েব খানের এত সম্পদের উৎস কোথায় ?


বিশেষ প্রতিবেদক : সময়ের ব্যবধান মাত্র ১০ বছর! এই সময়ে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীর ব্যাসপুরের নায়েব খান হয়ে উঠেছেন সাধারণ থেকে অসাধারণ ব্যক্তি। নিজ এলাকায় আলিশান বাড়ি, গাড়ি, ঘাট বাধানো পুকুর বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। গ্রামের বাড়িতেই তিনি করেছেন নান্দনিক ডিজাইনের ৩ তলা বাড়ি। নজড়কারা ডিজাইন আর দুর্নীতির অর্থের সমন্বয়ে তৈরি বাড়িটি এখন সবার দৃষ্টি কাড়ছে।

দুর্নীতির বরপূত্র নায়েব খানের স্ত্রী বিগত ১০ বছর আগে এক প্রচার বিনা চিকিৎসায় মারা যায় অর্থের অভাবে অথচ এখন তিনি শত কোটি টাকার মালিক।

এক সময় লুঙ্গি পরে চলা ফেরা করা নায়েব খান এখন স্যুটেড-ব্যুটেড। বিশাল ডেইরি ফার্মের মালিক, বাজার কমিটির সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। ভ্যান ভাড়ার অভাবে পায়ে হেটে যাতায়াতকারী নায়েব খান এখন চলেন এসি গাড়িতে চলেন। অশিক্ষিত হয়েও বনে গেছেন জুনিয়র স্কুলের (অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত) সভাপতি।

এ যেন আঙুল ফুলে কলা গাছ। প্রশ্ন করলে বলেন ব্যবসা করে সব করেছেন। অথচ তিনি কত টাকা ট্যাক্স দেন তার কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

এদিকে নায়েব খানের ছেলে আকাশের বিরুদ্ধে ডিভোর্সি নারী বেনতির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করার অভিযোগ রয়েছে। যেটি নায়েব খান নিজে বেনতির মায়ের সঙ্গে কথা বলে সমাধান করেন। নায়েব খানের ছেলে আকাশের ধর্ষণের বিষয়টি এক সময়ে টক অব দ্যা টাউনে পরিণত হয়।
নায়েব খানের টাকার উৎস কোথায় এটা এখন গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে এলাকায় কোটি টাকার প্রশ্নে পরিণত হয়েছে। সবাই বলেন ভাই সাবেক সচিবের (ওএসডি হয়ে বিদায় নেওয়া) নাম ব্যবহার করে তার এই অর্থ উপার্জন।

জানা গেছে, নায়েব খানের বিরুদ্ধে তার ভাই স্বাস্থ্য সচিব থাকা অবস্থায় নিজ গ্রামের শতাধিক ব্যক্তিকে এসেনসিয়াল ড্রাগে নিয়োগ দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, পূবালী ব্যাংকসহ বেশ কয়েকটি ব্যাংকে তার কোটি কোটি টাকা রয়েছে। নায়েব খানের পোষ্ট অফিসে নিজ নামে ও ছেলের নামে ফিক্সড ডিপোজিট রয়েছে। এলাকায় বিশাল গরুর ফার্ম ও ঢাকায় ফ্লাট কেনার অভিযোগ রয়েছে। ব্যাসপুর বাসস্ট্যান্ডে জবরদখল কৃত জমিতে দোকানপাট নির্মাণ করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ভাইকে দিয়ে পছন্দের প্রতিষ্ঠানকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কাজ পাইয়ে দিয়ে সেখান থেকে কমিশন খাওয়ার অভিযোগ রয়েছে এই নায়েব খানের বিরুদ্ধে।

এসব বিষয়ে জানতে তার নাম্বারে ফোন করলে তিনি এই প্রতিবেদক কে বলেন আমি সৎ নিষ্ঠাবান একজন মানুষ সব অভিযোগ মিথ্যা।