• ঢাকা
  • সোমবার, ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

রাত ২:১৪

কামারখন্দে মাদক দমন হলেও চলছে মরণখেলা জুয়া


সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মাদক সন্ত্রাস আর জুয়া একটি মরন ব্যাধি। যার আক্রমনে একটি সুশিক্ষিত সমাজ ব্যবস্থা ধ্বংসের পথে এগিয়ে চলে। ৩১  মার্চ ২০১৯ এই ধ্বংসের থাবা হতে শান্তি প্রিয় জনগনকে রক্ষার জন্য বাংলাদেশে প্রথম  কামারখন্দ উপজেলাকে মাদকমুক্ত ঘোষনা করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না।

তার এই ঘোষনায় আনন্দ উল্লাসের সৃষ্টি হয়েছিল সর্বশ্রেনীর মানুষের মাঝে।  কিন্তু নদীর একুল ভাঙ্গে ও কুল গড়ে এই প্রতিপাদ্য বাস্তবে রূপলাভ করছে কামারখন্দের জুয়া ব্যবসা। স্থানীয় যুব সমাজকে মাদক হতে রক্ষা করলেও জুয়ার সাগরে হাল ধরেছে যুব সমাজ।

জানা যায়, অতিসম্প্রতি উপজেলার ঝাঐল ইউনিয়নের বাগবাড়ি, কোনবাড়ি, পাইকোশা বাজার, ভদ্রঘাট ইউনিয়নের ভদ্রঘাট বাজার, রায়দৈলতপুর ইউনিয়নের বলরামপুর, চৌবাড়ি হাটসহ এলাকার হায়দারপুর, শ্যামপুর, প্যাচরপাড়া, বাঁশতলা বাজার, কাজিপুরা বাজার, জামতৈল ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় চলছে রমরমা জুয়ার ব্যবসা। উল্লেখিত হাট বাজারে প্রশাসনের নাকের ডগায়, ছালা ও পাটি পেড়ে এই জুয়ার আসর চলছে।

তাছাড়াও ভাড়ি বর্ষনের তাড়া খেয়ে চায়ের দোকান গুলোতেউ জমকে বসে জুয়ার আসর। এতে একদিকে যেমন যুব সমাজ ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে পাশাপাশি  শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলা গড়ার স্বপ্নকে কালি মাখাতেও সচেষ্ট রয়েছে এই জুয়ারীরা। আর স্কুল কলেজের ছাত্রদের মিথ্য বুলি শুনিয়ে ডেকে এনে ধ্বংসের পথে ঠেলে দিতেও দ্বিধা করছেনা জুয়ারী তথা কিছু সুবিধা ভোগী প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ। তাই অতিসত্তর মাদক, সন্ত্রাস দমনের মতই জুয়া খেলা দমনে দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহন করবে প্রশাসন এটাই আশা করে বাংলার শান্তি প্রিয় জনগন।

উল্লেখ্য, স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন জনগনকে সঙ্গে নিয়ে জুয়ার আসনে আঘাত হানলেও সুচতুর জুয়ারুদের গ্রেফতার করতে পারেনি।