• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৪ই সফর, ১৪৪১ হিজরী

রাত ১২:৪৫

কমলগঞ্জে মাদকের ছড়াছড়ি


কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে দিন দিন যেন বাড়ছে মাদকের ছড়াছড়ি। গত একমাসে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মাদক সেবনে আকৃষ্ট হচ্ছেন মধ্য বয়সী যুবকরা। মাদক সেবনের কারনে যুব সমাজ হচ্ছে বিপথগামী। মাদকের কারণে দিন দিন উত্তপ্ত হচ্ছে শান্তির উপজেলা কমলগঞ্জ।

জানা যায়, চলিত মাসে কমলগঞ্জ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ জনপদ শমসেরনগরে মাদকসহ ৭জনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে সবাই উড়তি বয়সী যুবক। যারা কোন না কোন ক্রমে এই মাদকের সাথে জড়িয়ে পড়েছে। এক শ্রেণীর চোরাকারবারী মাদক সিন্ডিকেট সদস্যরা সিএনজি ও মাইক্রোবাস যোগে শমসেরনগর থেকে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করছে ইয়াবা, মদ, গাঁজা, ফেনসিডিলসহ নানা মরন ব্যাধি উপাদান। মাঝে মাঝে পুলিশ কিংবা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর অভিযানে সিএনজি, মাইক্রোবাসসহ চালক গ্রেফতার হলেও সক্রিয় মাদক পাচারকারী সিন্ডিকেটের গডফাদাররা থেকে যায় ধরা ছোঁয়ার বাইরে। ভারতীয় সীমান্ত দিয়ে এসব মাদক প্রবেশ করছে উপজেলায়। এর সুবাদে চোরাকারবারী মাদক ব্যবসায়ী ও স্থানীয় অবৈধ আদম পাচারকারী সিন্ডিকেট সক্রিয় ভূমিকা পালন করে।

কমলগঞ্জ উপজেলার পাশ্ববর্তী কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাপুর সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে মাদক পাচারকারীরা বিভিন্ন কৌশলে বাংলাদেশ থেকে ভারতীয় কাঁটাতারের বেড়া ভেদ করে মাদক পাচারকরে থাকে। এ কাজে পাচারকারীরা ভাড়া চালিত মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার, অটোরিক্সা ব্যবহার করছে। পাচারকারীদের প্রতিরোধের জন্য সীমান্তবর্তী এলাকা বিজিবি জোয়ানদের অতন্দ্র প্রহরা থাকলেও তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে একশ্রেণীর চিহ্নিত মাদকপাচারকারীরা মাদক পাচার করে থাকেন। কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের দত্তগ্রামে মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় স্থানীয় দুই যুবকের উপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে মাদক ব্যবসায়ী চক্রটি।

শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ কুমার চৌধুরী বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ বেশ সক্রিয় রয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি সফল অভিযান হয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের পাশাপাশি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানান তিনি।