• ঢাকা
  • সোমবার, ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১শে সফর, ১৪৪১ হিজরী

সকাল ১১:০১

উপ-সচিবের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ধর্ষিতা তরুণী


নতুন কাগজ ডেস্ক: ইন্টারনেটে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে এক কলেজছাত্রীকে এক বছর ধরে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের একজন উপসচিবের বিরুদ্ধে। মামলার চার্জশিট হবার পর এ কে এম রেজাউল করিম রতন নামের এই কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।
অভিযোগপত্র দাখিলের পর তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এরপর জামিনে বেরিয়ে আসেন রেজাউল করিম রতন। অভিযোগ রয়েছে, জামিন পেয়েই ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীকে হত্যা ও এসিড নিক্ষেপের হুমকি দিচ্ছেন তিনি।
নির্যাতিতা ওই তরুণী জানান, ২০১৬ সালে মোহাম্মদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন এ কে এম রেজাউল করিম রতন। সে সময় ইন্টারমিডিয়েট ১ম বর্ষে ভর্তি হতে ওই কলেজে যান ওই তরুণী। এর মাস দুই পর থেকে ওই ছাত্রীর মোবাইল নম্বর যোগাড় করে তাকে ফোন করতে শুরু করেন অধ্যক্ষ রেজাউল করিম। দারিদ্র্যের কারণে ওই ছাত্রীকে পড়াশোনার পাশাপাশি অন্য একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে হতো। ফলে তিনি নিয়মিত ক্লাস করতে পারতেন না। অধ্যক্ষ হিসেবে রেজাউল করিম তার অনুপস্থিত থাকার কারণ জানতে চান এবং সেই কারণ জানার পর ওই ছাত্রীকে বলেন, তার চিন্তার কিছু নেই, তার পড়াশোনার সমস্ত দায়িত্ব তিনি নেবেন।
ওই তরুণী অভিযোগ করেন, এসব কথা বলে রেজাউল করিম ২০১৭ সালের ১২ জুন কলেজ ছুটির পর নিজকক্ষে ডেকে নেন। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা কেউ সেসময় কলেজে না থাকলেও পিয়ন জলিল ও হান্নান উপস্থিত ছিলেন। তারা ওই ছাত্রীকে অধ্যক্ষের কক্ষে পৌঁছে দেন। পিয়ন জলিল এরপর কেক ও কোমল পানীয় এনে দেন। কোমল পানীয়টি খাওয়ার পর তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। ঘণ্টা তিনেক পর ঘুম ভাঙলে তিনি নিজেকে অধ্যক্ষের কক্ষের সোফায় এবং শরীরের পোশাক এলোমেলো অবস্থায় আবিষ্কার করেন। অধ্যক্ষ রেজাউল করিম রতনও সে সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরে ওই ছাত্রী ঘটনা প্রকাশ করে দেয়ার কথা বললে রেজাউল করিম রতন বলেন, সমস্ত ঘটনার ভিডিও তার কাছে আছে, সে যদি এ ব্যাপারে সবাইকে জানায় তাহলে ওই ভিডিও তিনি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেবেন।
ওই তরুণী অভিযোগে জানান, এরপর থেকে সেই ভিডিও ফেরত দেয়ার কথা বলে বা ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার কথা বলে তাকে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় নিয়ে ধর্ষণ করেন রেজাউল করিম রতন। এরমধ্যে নিজের স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্স ও পারিবারিক অশান্তির কথা বলে তাকে বিয়ে করারও আশ্বাস দেন তিনি।

নতুন কাগজ/আরকে