• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং | ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ৫ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

রাত ১:৪০

ইব্রাহিমোভিচের মূর্তি ভাঙলেন ক্ষুব্ধ সমর্থকরা


লিওনেল মেসির পর এবার জ্লাটান ইব্রাহিমোভিচ। ভেঙে দেওয়া হল ফুটবল মহাতারকার ৫০০ কেজির মূর্তি। রবিবার রাতে মালমো ফুটবল স্টেডিয়ামের বাইরে পড়ে থাকতে দেখা যায় সোনালি রঙের মূর্তিটি। মূর্তির মুখ ঢেকে দেওয়া হয়েছে সুইডেনের একটি জার্সি দিয়ে।

কিন্তু কেন এমন ঘটনা ঘটল? কারাই বা ঘটাল এমন ঘটনা? আসলে গত মাস দুয়েক থেকেই সুইডিশ স্ট্রাইকারের উপর ক্ষুব্ধ তাঁর দেশের ফুটবলপ্রেমীরা। গত নভেম্বরে হ্যামারবির মালিকানার একাংশ কিনে নেন ইব্রাহিমোভিচ। এই ক্লাবটি সুইডিশ ক্লাবের অন্যতম বড় শত্রু। মালিকানা পাওয়ার পর তারকা জানিয়েছিলেন, তিনি তাঁর ক্লাবকে স্ক্যান্ডিনেভিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী ক্লাবে পরিণত করবেন। তার জন্য যা যা ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন, তা করবেন। দেশি তারকার এমন মন্তব্যের পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন সমর্থকরা। সুইডিশ হওয়ার পরও কীভাবে তিনি শত্রু ক্লাবের পক্ষে সুর চড়ান, এ প্রশ্নই তুলে দেন সুইডেনের ফুটবলপ্রেমীরা। আর সদ্য এসি মিলানে ফেরা স্ট্রাইকারের সেই মন্তব্যের প্রতিবাদেই এই কাণ্ড ঘটান সমর্থকরা।

বড়দিনের আগেই মূর্তিটির নাক কেটে দেওয়া হয়েছিল। এবার মূর্তিটিই ভেঙে ফেলা হল। স্টেডিয়ামের বাইরের লোহার বেড়ার উপর সেটি পড়তে থাকতে দেখা যায়। পরে সেটিকে সরিয়ে ফেলা হয়। মেরামতির পর ফের মূর্তিটি যথাস্থানে রাখা হবে বলে জানা গিয়েছে। তবে ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

গত বছর অক্টোবরেই এই মূর্তির উন্মোচন হয়েছিল। হাজির ছিলেন খোদ প্রাক্তন বার্সেলোনা তারকা ইব্রাহিমোভিচ। সেদিনই নিজের ছোটবেলার ক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে হ্যামারবি নিয়ে কথা বলেছিলেন তিনি। যা একেবারেই ভালভাবে নেননি সমর্থকরা। এর আগে দেশের জার্সি গায়ে খারাপ পারফরম্যান্সের জেরে আর্জেন্টিনায় ভাঙ্গা হয়েছিল এলেম টেনের মূর্তি । একাধিকবার মূর্তি নষ্ট করে মেসির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন আর্জেন্টাইন ফুটবলপ্রেমীরা। এবার একইরকম বিক্ষোভের মুখে পড়তে হল ইব্রাহিমোভিচকে। যদিও এ নিয়ে এখনও তাঁর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তিনি আপাতত ব্যস্ত সিরি এ নিয়ে। সোমবারই হয়তো এসি মিলানের জার্সি গায়ে স্যাম্পডোরিয়ার বিরুদ্ধে নামবেন তিনি।