• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

বিকাল ৪:০৭

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিউজিল্যান্ডের


স্পোর্টস ডেস্ক : ক্রাইস্টচার্চে প্রথম ম্যাচে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে পরাজয়। ইংল্যান্ডের সামনে যেন ঘরের মাঠেই ‘পর’ হয়ে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। কিন্তু টি-টোয়েন্টি সিরিজের পরের দুই ম্যাচে টানা ইংলিশদের হারিয়ে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর কথা জানান দিল কিউইরা।

৫ ম্যাচের সিরিজের নিষ্পত্তি হয়নি এখনও। তবে, সিরিজ জয়ের ক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে গেলো কেন উইলিয়ামসনের দল! নেলসনে আজ ইংলিশদের ১৪ রানে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো নিউজিল্যান্ড। কিউইদের করা ১৮০ রানের জবাবে ইংল্যান্ড থেমে যায় ১৬৬ রানে।

নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে মুখোমুখি হওয়ার আগে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ওয়েলিংটনে ইংল্যান্ডকে ২১ রানে হারিয়েছিল কিউইরা। বাকি দুই টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হবে নেপিয়ারে ৮ নভেম্বর এবং অকল্যান্ডে ১০ নভেম্বর।

নেলসনে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। শুরুতেই ওপেনার কলিন মুনরো এবং তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা টিম সেইফার্টকে হারাতে স্বাগতিকদের। ৮ বলে ৬ রান করে মুনরো এবং ১২ বলে ৭ রান করে সেইফার্ট বিদায় নেন। এরপর নিয়মিত বিরতিতে বিদায় নেন মার্টিন গাপটিলও। যদিও তিনি ১৭ বলে ৩৩ রান করে দিয়ে যান।

পাঁচ নম্বরে নামা কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম এবং ৬ নম্বরে নামা রস টেলরের ৬৬ রানের জুটি গড়ে তোলেন। ২৪ বলে ২৭ রান করে আউট হন রস টেলর। কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম করেন সর্বোচ্চ ৩৫ বলে ৫৫ রান করেন। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৫টি বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কার মারে।

এছাড়া জিমি নিশাম ১৫ বলে করেন ২০ রান। মিচেল সান্তনার করেন ৯ বলে ১৫ রান। টিম সাউদি করেন ১ রান। ইংলিশ টম কুরান ২৯ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। শেষ পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ গিয়ে দাঁড়ায় ৭ উইকেট হারিয়ে ১৮০ রানে।

জবাব দিতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রানে থামে ইংল্যান্ডের ইনিংস। ৩৪ বলে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন ডেভিড মালান। জেমস ভিন্স করেন ৩৯ বলে ৪৯ রান। টম বেনটন এবং ইয়ন মরগ্যান করেন ১৮ রান করে। লকি ফার্গুসন এবং ব্লেয়ার টিকনার নেন ২টি করে উইকেট। ম্যাচ সেরা হন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম।