• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

দুপুর ১:৩২

আবারও আইএস হামলা


মো: সাহেদ : গত শনিবার রাতে রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরিতে  মন্ত্রীর নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশের ওপর বোমা হামলা হয়েছে। ঘটনায় দুই পুলিশ আহত হয়েছে। পুলিশের ওপর হাতবোমা হামলার দায়  স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস । যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ বলেছে, বাংলাদেশের রাজধানীতে এই বোমা হামলা আইএস চালিয়েছে । যদিও এ ঘটনায় আইএসের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে মনে করছে না পুলিশ সদর দপ্তর।

বাংলাদেশে আইএস নেই, সরকারপক্ষ থেকে বরাবরই এমন দাবি করে আসা হচ্ছে। পাশাপাশি এটিও দেখা যাচ্ছে, এ ধরনের যেকোনো বোমা হামলার পর আইএসের পক্ষ থেকে দায় স্বীকার করা হয়। আগেও পুলিশকে লক্ষ্য করে ছোটখাটো কয়েকটি হামলার ঘটনার পর আইএসের নামে দায় স্বীকারের বার্তা এসেছে। বাংলাদেশের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা এসব ঘটনায় আইএসের জড়িত থাকার কথা উড়িয়ে দিলেও কারা এগুলো ঘটিয়েছে, সেটি বের করতে পারেনি। সাম্প্রতিক সময়ে দেখা যাচ্ছে পুলিশকেই টার্গেট করা হচ্ছে। কিছুদিন আগে গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্সে ট্রাফিক ছাউনিতে ককটেল বিস্ফোরণ হয়্।তাতে ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়। ২৬ মে রাতে পুলিশের একটি গাড়িতে  মালিবাগের মোড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনার দায় স্বীকার করেছিল  আইএস।

একের পর এক বোমা হামলার ঘটনা চিন্তায় ফেরেছে দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে। বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে জঙ্গি-সন্ত্রাস বিস্তারের বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্বের দাবি রাখে।

বাংলাদেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, সামরিক বাহিনী ও জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলো সন্ত্রাসবাদবিরোধী লড়াইয়ে কার্যকর সক্ষমতা অর্জন করেছে। আমরা আশা করি, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলো আরো তৎপর হবে।