• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৭ই এপ্রিল, ২০২০ ইং | ২৪শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৩ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

সন্ধ্যা ৭:৪৪

অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি নিজেও


বিনোদন ডেস্ক :দীর্ঘ ২০ বছর ধরে অভিনয় করে চলেছেন অভিনেতা মাজনুন মিজান। নাটকের পাশাপাশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেও প্রশংসা পেয়েছেন। ক্যারিয়ারে এবার নতুন পরিচয়ে নাম লেখালেন এ অভিনেতা। সম্প্রতি পরিচালনায় হাত দিয়েছেন তিনি। মধ্যে একটি টেলিফিল্মের কাজও শেষ করেছেন তিনি। অভিনয়, পরিচালনা ও সমসাময়িক নানা বিষয়ে কথা হলো তার সঙ্গে….

এই প্রথমবার পরিচালনায় হাত দিলাম। প্রথমে একটি শর্টফিল্ম নির্মাণ করতে চেয়েছিলাম কিন্তু তার আগেই টেলিফিল্ম করে ফেললাম। এর শুটিং হয়েছে নোয়াখালীতে। এ মাসেই ‘মানুষ’ নামের শর্টফিল্মটির শুটিং শুরু করার কথা ছিল কিন্তু করোনার কারণে পরে করতে হচ্ছে। শুটিং হবে মানিকগঞ্জে। আমরা হিন্দু-মুসলিম যে ধর্মেরই হই না কেন আমাদের আসল পরিচয় আমরা মানুষ। এটিই শর্টফিল্মে তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া আরও নতুন একটি টেলিফিল্মের কাজ করার পরিকল্পনা রয়েছে। শুটিং শুরু না করে এ নিয়ে কিছু বলতে চাই না।

টেলিফিল্ম ‘আমলকী’…

‘আমলকী’ যেমন খেতে ভালো লাগে না। প্রথমে তিতা লাগলেও পরে কিন্তু একটু মিষ্টি লাগে। এর উপকারিতা অনেক। তেমনই সৎভাবে চলা মানুষের জন্য কঠিন হলেও এর ফল ভালো হয়। সৎ জীবনযাপনের গুরুত্ব তুলে ধরা হয়েছে ‘আমলকী’ টেলিফিল্মে। এটি রচনা করেছেন আহসান আলমগীর। প্রচারিত হবে মাছরাঙা টেলিভিশনে।

অভিনয়…

গত নারী দিবস ও ৭ মার্চের একাধিক নাটকে কাজ করেছি। নারী দিবসের নাটকটি পরিচালনা করেছেন সকাল আহমেদ। প্রচারিত হয়েছে বৈশাখী টিভিতে। সত্য ঘটনা অবলম্বনে মহিউদ্দীনের রচনায় ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণ নিয়ে মো. ইমাম হোসেনের পরিচালনায় ‘কথার ফুল’ নাটকটি প্রচারিত হয়েছে বিটিভিতে। এর মধ্যে কয়েক দিনের জন্য আমি দেশের বাইরে কলকাতায় গিয়েছিলাম। ঈদের কয়েকটি নাটকের কাজ হাতে রয়েছে। করোনার কারণে শুটিং বন্ধ রয়েছে।

নাটক-সিনেমায় করোনার প্রভাব…

যে কোনো অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে মানুষকে সতর্ক থাকা জরুরি। করোনার কারণে নাটক ও সিনেমা অনিশ্চয়তায় পড়ে যাচ্ছে। ঈদের পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামা যাচ্ছে না। সব শুটিং বন্ধ। সিনেমা হল বন্ধ। আমার সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘গন্ডি’ বাংলাদেশের পর এবার কলকাতায় মুক্তির কথা ছিল কিন্তু করোনার কারণে আপাতত মুক্তি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। আমাদের দেশেও অনির্দিষ্টকালের জন্য বেশ কয়েকটি ছবির মুক্তির তারিখ পিছিয়ে গেছে। আমি নিজেও পরিচালনার কাজগুলো কবে নাগাদ করতে পারব তা নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি।

ওয়েব সিরিজ নিয়ে অভিযোগ…

ওয়েব সিরিজ প্রদর্শনের বিষয়টি নিয়ে একটু ভাবা দরকার। ওয়েব সিরিজে অশ্লীলতার অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়। এখানে কাজের স্বাধীনতা আছে বলেই যা ইচ্ছে তাই করা ঠিক নয়। একটা নিয়মের মধ্যে আসা দরকার। ওয়েব সিরিজ ভালো হচ্ছে না। দর্শকরাও এটি সেভাবে গ্রহণ করছে বলে মনে হয় না। এখনো দর্শক টিভি নাটক দেখেন। হয়তো আগের মতো টিভি সেটের সামনে বসে পরিবারের সবাই মিলে নাটক দেখা হয় না। কিন্তু দর্শকরা ইউটিউবে নাটক দেখেন। সময়ের এই পরিবর্তন স্বাভাবিক। তবে পরিবারের সবাই মিলে নাটক দেখার আবেদন কখনো ফুরাবে না।