শুরু হলো নতুন কাগজের ‘গৃহপ্রকাশ’

0
22

নিজস্ব প্রতিবেদক:  নতুন বছরের প্রথম দিনে আরো একধাপ এগিয়ে গেলো ‘আগামীর দৈনিক’ নতুন কাগজ। অনলাইনে সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি পাঠকের কাছে পূর্ণাঙ্গ অবয়বে পৌছার প্রস্তুতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হলো দৈনিক নতুন কাগজের ‘গৃহপ্রকাশ’। সোমবার (০১ জানুয়ারি) ঘরোয়া আয়োজনে রাজধানীর একটি রেস্টুরেস্টে দৈনিক নতুন কাগজের প্রধান সম্পাদক ও রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহম্মদ সাহেদ দৈনিক নতুন কাগজের মুদ্রিত সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রিজেন্ট গ্রুপের সকল অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহম্মদ সাহেদ বলেন, ‌‘আমি স্বপ্নবাজ লোক, স্বপ্ন নিয়ে ভাবি এবং কখনো পিছনে ফিরে তাকাই না। দৈনিক নতুন কাগজ নিয়ে আমার স্বপ্ন দেখা শুরু তিন বছর আগে। অাজ সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে একধাপ এগিয়ে গেলাম।’

রিজেন্ট গ্রুপের কর্মীদের অনুরোধে নিজের জীবনের স্মৃতিচারণ করে মিডিয়া ব‌্যক্তিত্ব ও সফল ব্যবসায়ী মোহম্মদ সাহেদ বলেন, একদিনে আমি আজকের পর্যায়ে আসিনি। অনেক চড়াই উৎরাই পার করেছি। কখনো হোঁচট খেয়েছি। কখনোবা থমকে গিয়েছি। কিন্তু আমার জীবনের একটি শপথ ছিল, জীবনে পেছন ফিরে তাকাবো না। পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করে যাবো। নতুন কাগজকে পরিকল্পনা অনুযায়ী সবার কাছে গ্রহণযোগ্য একটি পত্রিকা হিসেবে তুলে ধরতে চাই।

এ সময় তিনি বলেন, গতকাল নিয়ে আমি ভাবতে রাজি না। আমি অাগামী নিয়ে ভাবতে চাই। প্রতিদিন রাত ১২টায় আগের দিনের ঘটনা ভুলে গিয়ে নতুন দিনের জন্য তৈরি হই।

ওয়ান- ইলিভিনের সময় নিজের উপর অমানুষিক নির্যাতনের কথা বলতে গিয়ে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান বলেন, দিনগুলো ছিল বিভীষিকাময় ।রাত্র সাড়ে এগারোটার সময় কে বা কারা আমাকে অজ্ঞাত স্থানে তুলে নিয়ে গেলো। লন্ডনে আত্মগোপন করা এক আলোচিত ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলার অপরাধে অমানুষিক নির্যাতন চলে আমার ওপর। ২৮ দিন আটকে রেখে আমার নামে তারা ২৮টি মামলা করে। সবই মিথ্যা অভিযোগ। আমি আইনগতভাবেই ওইসব মামলার মুখোমুখি হই এবং পরে সেগুলো থেকে অব্যাহতি পাই।

পরে নতুন কাগজের প্রিন্ট ভার্সন রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যানের হাতে তুলে দেন নতুন কাগজের নির্বাহী সম্পাদক আবু সাঈদ আহমেদ ও বার্তা সম্পাদক বিপুল হাসান।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে দৈনিক নতুন কাগজের নির্বাহী সম্পাদকী আবু সাঈদ আহমেদ বলেন,  এ পত্রিকার সম্পাদক ও রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহম্মদ সাহেদের হাতে প্রিন্ট ভার্সনের ডেমো কপি তুলে দিতে পেরে অামরা আনন্দিত। তিনি নিজে যেমন স্বপন দেখতে জানেন. অন্যদেরও স্বপ্ন দেখাতে ভালোবাসেন। নতুন কাগজের স্বপ্ন বাস্তবায়নে একধাপ এগিয়ে যাওয়ায় আমরা আনন্দিত।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন রিজেন্ট হাসপাতাল (মিরপুর শাখা) -এর ডি এম ডি বায়োজিদ হোসেন। এর পর পর একে একে বক্তব্য রাখেন রিজেন্ট গ্রুপের কর্মসংস্থান সোসাইটির (মিরপুর শাখা) ফিল্ড অফিসার রফিকুল ইসলাম, রিজেন্ট গ্রুপের ডি জি এম মাসুদ রানা এবং সেন্ট্রাল কলেজের অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন।

 

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন