Natun Kagoj

ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ | ১ পৌষ, ১৪২৪ | ২৬ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯

স্ট্রেস কমানোর কিছু কার্যকরী কৌশল

আপডেট: ২২ জুলা ২০১৬ | ১১:২১

স্ট্রেস কমানোর

কাগজ ডেস্কঃ প্রকৃত অর্থেই সুখে থাকতে আর নিজের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে প্রতিনিয়তই আমাদের লড়তে হয় স্ট্রেসের সাথে। নিত্যদিনের জীবনে এত রকম ঘটনা ঘটে যে স্ট্রেসড না হয়ে উপায় থাকে না। কখনো কখনো তো মনে হয়, মাথাটা আর কাজ করছে না। কখনো এত ক্লান্ত বোধ হয় যে আর কোন কাজ করতে ইচ্ছা হয় না। স্ট্রেস কমাতে এবং ফুরফুরে মেজাজ ফিরিয়ে আনতে আমরা কয়েকটি কৌশলের কথা জানাচ্ছি। অদ্ভুত হলেও চমৎকার কার্যকরী কৌশলগুলো সহজ করবে আপনার জীবনকে।

চুল আঁচড়ানো
অদ্ভুত শোনাচ্ছে হয়ত। কিন্তু এটা সত্যি যে, প্রচন্ড স্ট্রেস অবস্থায় আপনি নিজেকে শান্ত করতে পারেন সামান্য এই কাজটি করে। এতে মাথা ব্যাথা কমবে। মস্তিষ্ক রিল্যাক্স হবে। প্রতিদিন ১০-১৫ মিনিট চুল আচড়ানোর অভ্যাস করুন। এটি আপনার হার্ট বিট ধীর করবে এবং মাসলকে রিল্যাক্স করবে।

ভাল খাবার খান
মজাদার খাবার সবসময়ই এন্টিডট হিসেবে কাজ করে স্ট্রেসের ক্ষেত্রে। তৈলাক্ত মাছে থাকে ওমেগা -৩, যা আপনার মুড ভাল করে দেবে সহজেই। তবে এই খাবার যদি আপনার অপছন্দ হয় তাহলে খেতে পারেন আইস ক্রীম অথবা কলা।

ম্যাসাজ করুন
নাকের চারপাশে, আইব্রো এর নিচে, লোয়ার লিপের নিচে হাতের তালুর মাঝে ম্যাসাজ করুন। এতে আপনার ক্লান্তি কমবে। প্রতিদিন ৩০ সেকেন্ড করে প্রতিটি জায়গায় ম্যাসাজ করার অভ্যাস করুন। তবে অবশ্যই পদ্ধতিটি আগে শিখে নিন।

দুই হাত ঘষুন
দুই হাতের তালু ঘষুন পরস্পরের সাথে। অদ্ভুত হলেও এটি খুবই কার্যকরি। স্ট্রেসের কারণে শরীরের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ার সুযোগ থাকে। কিন্তু হাতের তালু ঘষে বা কান ঘষে আপনি নিজেকে এসব শারীরিক ক্ষতিকর প্রভাব থেকে মুক্ত করতে পারেন।

ধুয়ে ফেলুন
১৫ মিনিটের একটি গোসল আপনাকে করে ফেলবে ঝরঝরে, স্ট্রেসফ্রি। হালকা গরম পানির একটি গোসল আপনার মাথা, কাঁধ আর পিঠে এমন একটি ম্যাসাজ করে দেবে যে আপনি আপনা থেকেই শান্তি অনুভব করবেন। একই সাথে মন থেকেও ধুয়ে যাবে টেনশন, বিরক্তি।

২৭ টি বস্তু
এটি একটি প্রাচীন বুদ্ধি। ঘরের ২৭ টি বস্তু এক জায়গা থেকে সরিয়ে অন্য জায়গায় রাখুন। এটি একটি স্থানান্তর গেম। এই কাজ করতে করতে আপনি টেরই পাবেন না কখন যে অসুখী ভাবনাগুলো ছুটি নেবে আপনাকে কষ্ট দেওয়া থেকে। নিজেই একবার কোউশলটি নিয়ে দেখুন না কি হয়!

সিঁড়ি ব্যবহার করুন
মন খারাপ নিয়ে লিফটে উঠে গেলেন নিশ্চিন্তে। আপনার ভাবনায় কোন বাধাই পড়ল না। তার চেয়ে বরং সিঁড়ি ব্যবহার করুন। যে কাজ আমরা সাধারণত করি না এমন কাজ করতে গেলে এমনিতেই আমাদের মস্তিষ্ক ভিন্ন খাতে প্রবাহিত হয়। একই সাথে ৩০ সেকেন্ড সিঁড়ি বেয়ে ওঠা আপনার শরীরে অক্সিজেনের প্রবাহ বাড়াবে, কমাবে স্ট্রেস।

সংরহঃ প্রিয়.কম


নতুন কাগজ | রুদ্র মাহমুদ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

Loading Facebook Comments ...
 বিজ্ঞাপন