Natun Kagoj

ঢাকা, রবিবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ৩রা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

সুপ্রভাত বাংলাদেশ, শুভ কামনা টাইগার্স

আপডেট: ১৯ মার্চ ২০১৭ | ১০:৩২

সেবাস্টিয়ান গোমেজ

আজ ভোরেও ঢাকার বাতাস ছিলো বেশ কনকনে। চৈত্রের শুরুতে এমন শীতল বাতাস কিসের বার্তা বয়ে এনেছে জানা নেই। ভোরের কুয়াশা ফুরে রোদের আলোর ঝলকানি এসে কাটিয়ে দিলো গাঢ় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। আজ ভীষণ উজ্জ্বল দিন, যাকে বালে রৌদ্রকরোজ্জ্বল। ঢাকার মত কলম্বোর আকাশেও কি আজ এমন রোদ – কি জানি! তবে বাংলার ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ যে আজ ভীষণ অপেক্ষায় আছে, অপার আশায় আছে একটা জয়ের। এই জয়টা আর দশটা জয়ের মত মোটেই নয়, শততম ক্রিকেট টেস্ট ম্যাচে অর্জিত জয় অবশ্যই বিশেষ কিছু।

যারা বাংলাদেশের ক্রিকেট দলকে টাইগার্স হয়ে উঠতে দেখেছেন, যারা প্রতিটি পরাজয়ের পরেও দলকে সমর্থন করে গেছেন সর্বোতভাবে এটা ভেবে যে- ‘দেখিস! একদিন আমরাও’, তাদের প্রতিক্রিয়া এবং আবেগ একটু বেশীই হবে। বেশ ক’বছর আগেও বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে বিশ্ব ক্রিকেট মোড়লদের কতশত নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া। ক্রিকেট কূটনীতি আর বিশাল সংখ্যক দর্শকের ভালোবাসাই ছিলো তখন এসব প্রতিক্রিয়ার যোগ্যতম পাল্টা জবাব। দিন বদলেছে, এখন বাংলাদেশের ক্রিকেট মাঠে খেলেই নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার জবাব দিতে শিখেছে। শিখেছে জয়ের নেশা।

গল টেস্টের আগে ও পরে অর্থাৎ বাংলাদেশের ৯৯তম টেস্টের  আগে ও পরে আবারও সমালোচকরা ঝাপিয়ে পড়েছিলেন। অথচ কলম্বো টেস্টে এসে ঠিক ঠিক ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। শততম টেস্টে জয়ের ঘ্রাণ পাচ্ছে বাংলাদেশ।

গতকাল চতুর্থ দিনে মোস্তাফিজ-সাকিবের আঁটসাঁট বোলিংয়ের কারণে চালকের আসনে রয়েছে বাংলাদেশ। ফলে শ্রীলংকা দ্বিতীয় ইনিংসে নিজেদের দলীয় সংগ্রহটা খুব বেশি বড় করতে পারেনি । বাংলাদেশের বিপক্ষে চতুর্থ দিনে শ্রীলঙ্কা খেলা শেষ করেছে ৮ উইকেটে ২৬৮ রানে। লিড নিয়েছে ১৩৯ রানের। হাতে রয়েছে ২ উইকেট। শেষ দিনে লংকানদের ১৬০ রানের মধ্যে আটকে ফেলতে পারলে শততম টেস্টে জয় পাওয়া সম্ভব বলে মনে করছে টাইগারা।

বাংলাদেশের প্রতিটি গণমাধ্যমই শততম টেস্টে জয়লাভের প্রত্যাশায় মুখর হয়েছে। প্রথম আলোয় পবিত্র কুন্ডু লিখেছেন, ‘এ ক্ষেত্রে ক্রিকেট-বিধাতার উচিত, যে দলটি সেরা ক্রিকেট খেলেছে চার দিন ধরে, যাদের মধ্যে জয়ের আকুতিটা বাজছে তীব্রভাবে, তাদের দিকেই হেলে পড়া। সেই দলটি বাংলাদেশ।’ তিনি আর লিখেছেন, ‘সব অনিশ্চয়তা সরিয়ে তীব্রতম আলোয় উদ্ভাসিত হওয়ার প্রস্তুতিই হয়তো নিচ্ছেন মুশফিকরা। আলোটা শততম টেস্ট জয়ের গৌরবের।’

দৈনিক ইত্তেফাকে প্রিয় ক্রীড়া সাংবাদিক দেবব্রত মুখোপাধ্যায় লিখেছেন, ‘আজ রাতে কী আর চোখ বুজে আসবে!

এই রাত ঘুমানোর জন্য নয়। এই রাত কেবলই অপেক্ষার এক রাত। বাংলাদেশের আরেকটা সোনালী জয়ের জন্য অপেক্ষার রাত।

এমন অপেক্ষার রাত এর আগে আসেনি, তা নয়। মুলতান, ফতুল্লায় এমন অপেক্ষার পর স্বপ্নভঙ্গের কথাও মনে আছে বাংলাদেশের। তবে এই দলটা তো একটু অন্যরকম। এই বাংলাদেশ দল আর পেছন থেকে লড়াই করছে না। এই দলের বিপক্ষেই বরং ম্যাচ বাঁচাতে, লজ্জা বাঁচাতে লড়াই করছে এখন শ্রীলঙ্কা!’

শুভ কামনা বাংলাদেশ ক্রিকেট দল, জয়ের প্রত্যাশায় আজ রোদ আরও উজ্বল হবে। আনন্দে ভিজে উঠবে চোখের পাতা- এটা তো খুব বেশী চাওয়া নয়। তবে শেষ কথা হলো শততম টেস্টে জয় বা পরাজয় ফলাফল যা-ই হোক কোনো দু:খ নেই, কোনো বেদনা নেই। কারণ চারদিন ধরে টেস্টটি আমাদেরই ছিলো।


নতুন কাগজ | শাওন চৌধুরী

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

Loading Facebook Comments ...
 বিজ্ঞাপন