Natun Kagoj

ঢাকা, সোমবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ৪ঠা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

বাংলাদেশ ৬ ইউকেটে ২২৮

আপডেট: ০৪ সেপ্টে ২০১৭ | ১৬:৪৬

ক্রীড়া ডেস্ক: দ্রুতই ৫উইকেট হারিয়ে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে বাংলাদেশকে বিপর্যয় থেকে টেনে তুলছিলেন সাব্বির রহমান ও মুশফিকুর রহিম। কিন্তু নিজের পঞ্চম উইকেট শিকারের মধ্য দিয়ে মুশফিক-সাব্বিরের ১০৫ রানের জুটি ভেঙে দেন নাথান লায়ন। সাজঘরে ফেরার আগে ১১৩ বলে ৬৬ রান করেন সাব্বির।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ ৮৪ ওভারে ৬ ইউকেটে করেছে ২২৮রান।  মুশফিক অপরাজিত আছেন ৫৪ রানে। নাসির হোসেন করেছেন ২ রান।

মুশফিকের ফিফটি ও শত রানের জুটি: চট্টগ্রাম টেস্টে সাব্বির রহমানের পর ফিফটির দেখা পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দলের দুঃসময়ে সাব্বির রহমানকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছেন টাইগার অধিনায়ক। ১২৪ বলে ৪টি চারে ফিফটি তুলে নিয়েছেন তিনি। টেস্টে এটি মুশফিকের ১৮তম ফিফটি। তার ফিফটিতে সাব্বিরের সঙ্গে জুটির শত রান পূরণ হয়েছে। ১০০ রানের জুটি গড়তে সাব্বির ৬৫ ও মুশফিক ৩৫ রান করেছেন। তাদের ব্যাটে ভর করে বড় সংগ্রহে চোখ রাখছে বাংলাদেশ।

মুশফিক-সাব্বির জুটির ফিফটি: বাংলাদেশের দুঃসময়ে হাল ধরেছেন মুশফিকুর রহিম ও সাব্বির রহমান। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৫০ রানের জুটি গড়েছেন এ জুটি। ১৬ ওভার খেলে ফিফটি পূরণ করেছেন তারা। সাব্বির ৩৪ ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ৩২ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

ফিরলেন সাকিব: ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৮৪ রান এসেছিল সাকিব আল হাসানের কাছ থেকে। চট্টগ্রাম টেস্টেও তার কাছ থেকে দারুণ কিছুর প্রত্যাশা ছিল টাইগার সমর্থকদের। অস্ট্রেলিয়ার স্পিনারদের দাপটের দিনে ব্যাট হাতে খুব একটা প্রতিরোধ গড়তে পারেননি বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডারও। অ্যাস্টন অ্যাগারের বলে উইকেটরক্ষক ম্যাথু ওয়েডের হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ২৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন সাকিব।

বাংলাদেশের ১০০: চট্টগ্রাম টেস্টে আজ প্রথম দিনে লাঞ্চের আগেই ৩ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। লাঞ্চের পর প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেননি টেস্ট স্পেশালিস্ট মুমিনুল হকের মতো ব্যাটসম্যানও। ওপেনার সৌম্য সরকার এবং মুমিনুল প্রতিরোধের চেষ্টা করলেও এক অসি স্পিনার নাথান লায়নের কাছেই ধরাশয়ী হতে হয়েছে তাদের। তবে এ বিপর্যয়ের মধ্য দিয়েই সাকিব ও মুশফিকের হাত ধরে দলীয় ১০০ রানে পৌঁছেছে বাংলাদেশ। সাকিব ১৬ ও মুশফিক ৯ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

লাঞ্চের পর মুমিনুলের বিদায়: বাংলাদেশের হয়ে দুই ম্যাচ বিরতির পর চট্টগ্রাম টেস্টে দলে ডাক পেয়েছেন মুমিনুল হক। দলের টপঅর্ডারদের ব্যাটিং ব্যর্থতার মাঝে তিনি এগোচ্ছেলেন কিছুটা ধৈর্য্য ধরেই। কিন্তু বেশিক্ষণ টিকতে পারলেন না টেস্ট স্পেশালিস্ট এ ব্যাটসম্যানও। লাঞ্চের পর মাঠে নেমে স্পিনার নাথান লায়নের এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৬৭ বলে ৩১ রানের ইনিংস খেলেন মুমিনুল।

লাঞ্চের আগে ৩ উইকেট: দিনের শুরুতে তামিম আর ইমরুল ফিরলেও সৌম্যের ব্যাটে চড়ে প্রতিরোধের স্বপ্ন দেখছিল টাইগার ভক্তরা। কিন্তু লাঞ্চের আগেই এই ওপেনারকে ফিরিয়ে প্রতিরোধ ভাঙে অস্ট্রেলিয়া। মুমিনুলের সঙ্গে তার ৪৯ রানের জুটি প্রায় জমে গিয়েছিলেন উইকেটে। কিন্তু নাথান লায়নের বলে মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগে দিয়ে এলবিডব্লু সৌম্য। তাঁর বিদায়ে ৩ উইকেটে ৭০ রান নিয়ে প্রথম সেশন শেষ করেছে বাংলাদেশ। ২৪ রানে অপরাজিত রয়েছেন মুমিনুল।

পারলেন না সৌম্যও: তামিম ও ইমরুল কায়েসের দ্রুত বিদায়ের পর বাংলাদেশের হয়ে প্রতিরোধের আভাস দিয়েছিলেন সৌম্য সরকার। মুমিনুল হককে নিয়ে সেই পথে এগিয়ে গড়েছিলেন ছোট একটি জুটি। কিন্তু সেই নাথান লায়নের শিকার হওয়ায় তাদের ৪৯ রানে জুটি ভেঙে যায়। ৮১ বল মোকাবলোয় ৩৩ রান করেছিলেন সৌম্য।

রিভিউতে ফিরলেন ইমরুল: তামিমের আউটের পর শুরুর ধাক্কা সামলে প্রতিরোধ গড়তে পারেননি ওয়ানডাউনে নামা ইমরুল কায়েস। আবারও ঘাতকের ভূমিকায় স্পিনার লায়ন। ইনিংসের ১৪তম ওভারের চতুর্থ বলে এলবিডব্লিউর জন্য জোরালো আবেদন করলেও সাড়া দেননি আম্পায়ারা। তবে ইমরুলের জন্য আম্পায়ার কলের বিপক্ষে রিভিউ নেন অসিরা। আর রিভিতেতেই পরিস্কার এলবিডব্লিউর জন্য ব্যক্তিগত ৪ রানে আউট হতে হয় ইমরুল কায়েসকে।

শুরুতে ফিরলেন তামিম: সৌম্য সরকারের সঙ্গে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের শুরুটা বেশ ধীরভাবেই শুরু করতে যাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল। প্রথম ৯ ওভার ঠিকঠাক খেললেও দশম ওভারের প্রথম বলেই প্রথম উইকেট হারাল বাংলাদেশ। অসি স্পিনার নাথান লায়নের পঞ্চম ওভারের প্রথম বলেই সরাসরি এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তামিম। লায়নের করা বলে দ্রুত ব্যাট সঠিক জায়গায় প্রতিস্থাপন করতে দেরি হওয়ায় সেটি তামিমের প্যাডের মাঝামাঝি আঘাত করে। আউট হওয়ার আগে ৩৪ বলে ৯ রান করেন দেশসেরা এ ওপেনার।

টস: বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক ঢাকা টেস্টের পর চট্টগ্রাম টেস্টেও টস জিতেছেন। টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

মুমিনুল হক একাদশে: দুই টেস্ট পর একাদশে ফিরলেন মুমিনুল হক। টেস্ট স্পেশালিষ্ট ব্যাটসম্যান শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশের শততম টেস্টে বাদ পড়েছিলেন। খেলতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টও।

আট ব্যাটসম্যান একাদশে: মুমিনুল হককে নিয়ে মোট আট ব্যাটসম্যান নিয়ে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। দলে রয়েছে দুই স্পিনার ও এক পেসার।

এক পেসার নিয়ে বাংলাদেশ: এক পেসার নিয়ে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। শফিউল ইসলামকে দেয়া হয়েছে বিশ্রাম। খেলবেন মুস্তাফিজুর রহমান।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম ও মুস্তাফিজুর রহমান।

অস্ট্রেলিয়া দলেও পরিবর্তন: দুটি পরিবর্তন করা হয়েছে অস্ট্রেলিয়া একাদশে। ইনজুরির কারণে জশ হ্যাজেলউড আগেই নেই। তার পরিবর্তে এসেছেন স্পিনার ও’কিফ। বাদ পড়েছেন ব্যাটসম্যান উসমান খাজা। তার পরিবর্তে এসেছেন হিলটন কার্টরাইট।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: ডেভিড ওয়ার্নার, ম্যাট রেনশ, স্টিভেন স্মিথ, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, হিলটন কার্টরাইট, ম্যাথু ওয়েড, অ্যাস্টন অ্যাগার, স্টিভ ও’ কিফ, প্যাট কামিন্স, নাথান লায়ন।

তে এগিয়ে বাংলাদেশ: ঢাকা টেস্ট জিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে বাংলাদেশ। এবার সিরিজ জয়ের হাতছানি মুশফিকুর রহিমের দলের।


নতুন কাগজ | উৎপল দাশগুপ্ত

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

Loading Facebook Comments ...
 বিজ্ঞাপন