ফেসবুকে দুই প্রবাসীর প্রেম, অতঃপর বিয়ে

46

নতুন কাগজ ডেস্ক: ইতালি যাওয়ার আগে সুহেব আহমেদ নিরব আর রাশেদা অাহমেদ কেউ কাউকে চিনতেন না। ফেসবুকে দুই প্রবাসী বাংলাদেশি আবিস্কার করেন তারা এখন একই দেশে আছেন। সেই থেকে যোগাযোগ, চ্যাটিংয়ে একে অন্যকে জানা। একপর্যায়ে দেখা করা এবং পরস্পরের মন বিনিময়। তিন বছরের প্রেমের সফল পরিণতি টেনেছেন তারা দুই পরিবারের মধ্যস্থতায় বিয়ের মাধ্যমে। ভেনিসের একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে সম্প্রতি তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

সুহেব আহমেদ নিরব ইতালির মিলান শহরে বসবাস করেন। দেশের বাড়ি সিলেট জেলার জালালাবাদ থানার মোগলগাঁও ইউনিয়নে। তার বাবার নাম সামসুদ্দোহা। অন্যদিকে রাশেদা আহমেদ ভেনিস শহরে বসবাস করেন। তিনি শরীয়তপুরের নড়িয়া ইউনিয়নের সোরাফ হাওলাদারের মেয়ে।

বিয়ের ব্যাপারে রাশেদার বড় ভাই ইসমাইল হোসেন স্বপন জানান, ফেসবুকে তাদের বন্ধুত্ব হয়। পরে একে অপরকে ভালোবেসে ফেলে। ব্যাপারটি জানাজানি হলে পারিবারের সম্মতিতে বিয়ের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়।

বর সুহেব বলেন, ভালোবাসার মানুষকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেয়ে আমি খুশি। মন থেকে ভালোবাসলে সেই ভালোবাসা কখনও বিফলে যায় না।

কনে রাশেদা বলেন, পৃথিবীতে আমার মতো সুখী আর কেউ নেই। যাকে ভালোবেসেছি তাকে বিয়ে করেছি। সবার উচিত সত্যিকারের প্রেমিক-প্রেমিকা হওয়া। বিয়ের পরও আমরা প্রেম করে যাবো বলে ঠিক করেছি।