গাইবান্ধায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ

0
10

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: নিখোঁজের ১০ দিন পর আঁখি আক্তার নামে ৫ম শ্রেণীর এক ছাত্রীর মরদেহ গাইবান্ধার বোয়ালী ইউনিযনের রাধাকৃষ্ণপুরের তিনগাছেরতল এলাকার কেজিবি নামে একটি ইটভাটার কাাঁচা ল্যাট্রিনের কুয়া থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতের স্বজনদের দাবি, তাদের মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ফেলে রাখা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে কথিত প্রেমিক তোফায়েল আহম্মেদ তিতুকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

গাইবান্ধা সদর থানার ওসি খান মো: শাহরিয়ার জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যের আগে এলাকাবাসী তার লাশ ল্যাট্রিনের কুয়ার ভেতরে দেখতে পেয়ে পুলিশ কে খবর দেয়।

নিহত আঁখি নানা আবদুল আজিজের বাড়িতে থেকে গোদারহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতো। তাদের বাড়ি পাশের ঘাগোয়া ইউনিয়নের মাদ্রাসাপাড়া গ্রামে। তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে নানা ভাবে উত্ত্যক্ত করতো ঘাগোয়া এম বি উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির ছাত্র বখাটে তোফায়েল আহমেদ তিতু।

পুলিশ কর্মকর্তা জানান, এ ব্যাপারে নিহতের বাবা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে থানায় মামলা করেছেন।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন