Natun Kagoj

ঢাকা, সোমবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ৪ঠা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

কোরবানির গরু কিনতে লক্ষ্য রাখুন

আপডেট: ২৪ আগ ২০১৭ | ১৬:২৬

লাইফস্টাইল ডেস্ক: কোরবানির ঈদের আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। ঈদকে ঘিরে এরই মধ্যে জমে উঠেছে কোরবানির পশুর বাজার। যেহেতু কোরবানি দেওয়া ধর্মীয় দিক থেকে খুব গুরত্বপূর্ণ বিষয়। কোরবানির জন্য সুস্থ গরু কিনতে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন।

ছাগলের ক্ষেত্রে- বয়স কমপক্ষে এক বছর বয়স হতে হবে।
উটের ক্ষেত্রে- বয়স কমপক্ষে পাঁচ বছর হতে হবে।
ভেড়ার ক্ষেত্রে- বয়স কমপক্ষে এক বছর হতে হবে, তবে ছয় মাস বয়সের ভেড়াকে দেখে যদি এক বছর বয়সের মত দেখায় তাহলে তাকে কুরবাণী করা যাবে।

দিনের আলো থাকতেই সুস্থ পশু কিনুন। তা না হলে রাতের বেলা কিনলে রোগাক্রান্ত পশু কেনার সম্ভবনাই বেশি থাকে।

পশুর মুখের সামনে কিছু খাবার ধরুন। পশুটি যদি নিজ থেকে জিব দিয়ে খাবার টেনে নিয়ে খেতে থাকে, তবে বোঝা যাবে পশুটি সুস্থ। কারণ অসুস্থ পশু খাবার খেতে চায় না।

সুস্থ পশুর নাকের উপরটা ভেজা ভেজা থাকে।

গর্ভবতী গরু কোরবানি দেওয়া যায় না। তাই বেনার আগে সেটা নিশ্চিত হয়ে নিন।

সুস্থ পশুর পিঠের কুঁজ মোটা ও টান টান হয়।

গরু কিনতে চাইলে দেশি কিনতে চেষ্টা করুন। কারণ সীমান্ত পার হয়ে আসা গরুগুলো অনেক দূর থেকে আসে বলে ক্লান্ত হয়। অনেক সময় সেগুলো ছোট-খাট আঘাতপ্রাপ্তও হয়। আর দুর্বল গরু সুস্থ নাকি অসুস্থ সেটা বোঝা বেশ কষ্টকর।

মোটা গরু মানেই কিন্তু সুস্থ গরু নয়। মোটা গরুতে চর্বি অনেক বেশি হয়, যা খাওয়ার পর মানুষের স্বাস্থ্যের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। আর এ ধরনের অস্বাভাবিক মোটা গরু কিন্তু বিভিন্ন ওষুধ প্রয়োগ করেও মোটাতাজা করা হতে পারে। তাই সাবধান থাকুন।

পশু কেনার আগে এর শরীরের কোথাও ক্ষত আছে কিনা পরীক্ষা করে নিন।

শিং ভাঙ্গা আছে কিনা, লেজ, মুখ, দাঁত, খুর এসব কিছুই পরীক্ষা করে দেখুন, কোন ত্রুটি চোখে পড়ে কিনা। এসব কিছুই লক্ষ্য করলে দেখবেন অতি সহজেই সুস্থ পশু কেনা আপনার জন্য অনেক সহজ হবে।


নতুন কাগজ | উৎপল দাশগুপ্ত

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

Loading Facebook Comments ...
 বিজ্ঞাপন